alo
ঢাকা, রবিবার, ফেব্রুয়ারী ৫, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৩ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বরিশালের টানা পঞ্চম জয়ের পথে ঢাকার পঞ্চম হার

প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারী, ২০২৩, ১২:০৭ এএম

বরিশালের টানা পঞ্চম জয়ের পথে ঢাকার পঞ্চম হার
alo

 

নিউজনাউ ডেস্ক: বরিশালের সাকিবের ব্যাট যেন তলোয়ার হয়ে বিপিএলে শাসন করছে বিপক্ষ দলের বোলারদের। তবে ঢাকার নাসিরের ব্যাটও তলোয়ারের চেয়েও কম চলছে না। কিন্তু তার দলের অন্য সৈন্য সামন্তদের ব্যাট যেন জলে ভেজা বারুদ। তাদের নিদারুণ ব্যর্থতায় টানা পঞ্চম হার জুটলো ঢাকা ডমিনেটরসের ঝুড়িতে। 

বিপরীতে টানা পঞ্চম জয়ে ৬ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা মাশরাফি বিন মর্তুজার সিলেট স্ট্রাইকার্সকে ধরে ফেলেছে সাকিবের ফরচুন বরিশাল।

শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বিপিএলের ম্যাচে ঢাকাকে ১৩ রানে হারিয়েছে ফরচুন বরিশাল। আগে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৩ রান করে বরিশাল। জবাব দিতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভার খেলে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৬০ রানের বেশি করতে পারেনি ঢাকা।

ঢাকার লক্ষ্য ছিল ১৭৪ রানের। উসমান গনি উড়ন্ত সূচনা দিয়েছিলেন ঢাকাকে। ১৯ বলে তার ব্যাট থেকে আসে ৩০ রানের ইনিংস। তবে সৌম্য সরকার আরও একবার ব্যর্থ। ১৫ বল খেলে করেন ১৬ রান। এরপর মোহাম্মদ ইমরান ফেরেন ৩ রানে। ৫৯ রানে ৩ উইকেট হারায় ঢাকা।

সেখান থেকে মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে নাসিরের লড়াই। ৮৯ রানের জুটি গড়েন তারা। ৭ উইকেট হাতে নিয়ে শেষ তিন ওভারে ৩৮ রান দরকার ছিল ঢাকার। মিঠুন ৩৮ বলে ২ চার আর ৩ ছক্কায় ৪৭ রান করে যখন ফেরেন, তখন ৯ বলে ২৬ লাগতো।

কিন্তু মিঠুনকে আউট করা মোহাম্মদ ওয়াসিম ১৯তম ওভারটিতে দেন মাত্র ৭ রান। এতেই ঢাকার জয়ের আশা ফিকে হয়ে যায়। শেষ ওভারে দরকার ছিল ২৫, ঢাকা নিতে পারে ১১ রান। নাসির ৩৬ বলে ৩ চার আর ২ ছক্কায় ৫৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

এ নিয়ে এবারের বিপিএলে নাসিরের ইনিংসগুলো দাঁড়ালো এমন-৩৬*, ৪৪, ৩০, ৩৯, ৬৬*, ৫৪*। এই ছয় ম্যাচে উইকেটও নিয়েছেন ৭টি। অলরাউন্ড পারফরম্যান্স যাকে বলে!

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি বরিশালের। ১৭ রানের ভেতরই তারা হারিয়ে ফেলে দুই ওপেনার সাইফ হাসান (১০) ও এনামুল হক বিজয়কে (৬)। দ্রুত বিদায় নেন মেহেদী হাসান মিরাজ (১৭) এবং চতুরাঙ্গা ডি সিলভাও (১০)। ৬৩ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে তাই বিপদে পড়ে বরিশাল।  

কিন্তু সাকিবের ব্যাটিং দেখে তা মনেই হয়নি। আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে বোলারদের এসেই তুলোধুনো করতে থাকেন বরিশাল অধিনায়ক। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহককে অবশ্য বেশি ভয়ঙ্কর হতে দেয়নি ঢাকা। মুক্তার আলীর বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ১৭ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় ৩০ রান করা সাকিব।  

তবে পরে বরিশালের আর কোনো উইকেটই নিতে পারলো না ঢাকা। পঞ্চম উইকেটে জুটি বেঁধে দলকে চাপের মুখ থেকে সুবিধাজনক অবস্থানে নিয়ে যান মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও ইফতেখার আহমেদ। মাহমুদউল্লাহর ব্যাট যদিও সেভাবে কথা বলেনি। তবে ৩৪ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় ৫৬ রান করেন ইফতেখার। অপরপ্রান্তে ৩১ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় কেবল ৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন মাহমুদউল্লাহ।  

তবে ইফতেখারের সঙ্গে তার অবিচ্ছিন ৮৪ রানের জুটি দলের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ঢাকার হয়ে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন নাসির হোসেন। একটি করে পকেটে পুড়েন সালমান ইরশাদ, আরাফাত সানি ও মুক্তার।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২৩

X