alo
ঢাকা, সোমবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৩ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জাপানের ১২০ মিনিটের লড়াইয়ের সমাপ্তি 'ভাগ্যের খেলা'য়, কোয়ার্টারে ক্রোয়েশিয়া

প্রকাশিত: ০৬ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:১৪ এএম

জাপানের ১২০ মিনিটের লড়াইয়ের সমাপ্তি 'ভাগ্যের খেলা'য়, কোয়ার্টারে ক্রোয়েশিয়া
alo

 

নিউজনাউ ডেস্ক: কাতার বিশ্বকাপে নিজেদের যেন নতুন করেই চেনালো এশিয়ার পাওয়ার হাউজ খ্যাত জাপান। জার্মানিকে হারিয়ে শুরু, এরপর স্পেনকে হারিয়ে মৃত্যুকূপ থেকে রীতিমতো গ্রুপের সেরা হয়েই নকআউটে এসেছিল নীল সামুরাইরা। নকআউট পর্বে ক্রোয়েশিয়ার সাথে ১২০ মিনিটের দারুণ লড়াইয় শেষে তারা হারলো 'ভাগ্যের খেলা' পেনাল্টিতে এসে।

আল ওয়াকরার আল জানোব স্টেডিয়ামে সোমবার শেষ ষোলোর ম্যাচে আজ নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষ হয় ১-১ গোলে। এরপর খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। আর অতিরিক্ত সময়েও ফলাফল না আসলে ম্যাচ গড়ায় টাই ব্রেকারে। আর টাই ব্রেকারে ক্রোয়েশিয়ার গোলরক্ষক একা হাতে রুখে দেন জাপানের তিনটি পেনাল্টি। দমিনিক লিভাকোভিচের বীরত্বে টাইব্রেকারে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টারের টিকিট কাটে ক্রোয়েশিয়া।

কাতার বিশ্বকাপের নক আউট পর্বের তৃতীয় দিন আর ৫ম ম্যাচে এসে দেখা মিললো অতিরিক্ত সময়ের। আর অতিরিক্ত সময়েও ম্যাচের ফলাফল নির্ধারণ না হওয়ায় খেলা গড়াল টাইব্রেকারে। জাপান ও ক্রোয়েশিয়ার মধ্যকার শেষ ষোলোর লড়াইয়ে নির্ধারিত ৯০ মিনিটে ১-১ গোলে সমতায় শেষ হলে খেলা গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে। তবে অতিরিক্ত ৩০ মিনিট খেলার পরেও আসেনি কোনো ফলাফল। এতেই ফলাফল নির্ধারণীর জন্য ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে।

ম্যাচের শুরু থেকেই গতবারের ফাইনালিস্ট ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে সমানতালে খেলে প্রথমার্ধেই ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকেও দ্বিতীয়ার্ধে পেরেসিচের গোলে সমতায় ফেরে ক্রোয়েশিয়া। ৪৩তম মিনিটে কর্নার পায় জাপান। কিকটি গোলমুখে না করে নিজেরা দেয়া নেয়া করতে করতে ক্রোয়েশিয়ার জালে বল নিয়ে যায় জাপান। শেষ ক্রসটি করেন রিতসু দোয়ান। গোলমুখে ভেসে আসা বলটিতে পা লাগিয়ে ক্রোয়েশিয়ার জালে বল জড়িয়ে দেন মায়েদা।

এর আগে দুই দলই বলতে গেলে খেলেছে সমান সমান। যদিও বল দখলে ছিল ক্রোয়েশিয়ারই বেশি। ৫৮ ভাগ। আর জাপানের ছিল ৪২ ভাগ। কিন্তু আক্রমণে কেউ কারো চেয়ে কম ছিল না। জাপানের জালে অন্তত দু’বার নিশ্চিত বল জড়ানোর সুযোগ পেয়েছিলো ক্রোয়েশিয়া। জাপানও পেয়েছিল ২-৩ বার। শেষ পর্যন্ত গোলটি দিলো জাপানই।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকে গোল শোধে মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে ক্রোয়েশিয়া। গোলও পেয়ে যায় তারা খুব দ্রুত। ৫৫ মিনিটে লভরেনের ক্রস থেকে দারুণ এক হেডে গোল করে ক্রোয়েশিয়াকে সমতায় ফেরান টটেনহ্যাম তারকা ইভান পেরেসিচ। ২০১৪, ২০১৮, ২০২২ বিশ্বকাপ এবং ২০১৬ ও ২০২২ ইউরো কাপে গোল করা তৃতীয় খেলোয়ার হলেন পেরেসিচ। এর আগে এমন কীর্তি গড়েছেন কেবল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ও জের্দান শাকিরি।

৬৩ মিনিটে আবারো গোলের সুযোগ পায় ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু মদরিচের দারুণ শট ঝাপিয়ে পড়ে রুখে দেন জাপানিজ গোলরক্ষক গোন্ডো। এর ঠিক ৩ মিনিট প্রায় গোল হয়ে যাচ্ছিল ক্রোয়েশিয়ার। কিন্তু গোলরক্ষকের খুব সামনে থেকে বুদিমিরের নেওয়া শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। শেষ দিকে ক্রোয়েশিয়া গোলের চেষ্টা করলেও গোলমুখে তারা শট নিতে পারেনি। ফলে নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ ব্যবধানে থেকেই শেষ হলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে।

ম্যাচের ৯৬ মিনিটে ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ডের প্রাণ মদ্রিচকে তুলে নেন কোচ। ১০৫ মিনিটে জাপানের মিতোমার দূরপাল্লার শট দারুণভাবে রুখে দেন ক্রোয়েশিয়ার গোলরক্ষক। এছাড়া অতিরিক্ত ৩০ মিনিটে বলার মত কোন দলই তেমন আক্রমণ করে গোলের সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। ফলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে।

টাইব্রেকারের মিনামিনোর প্রথম শটটাই রুখে দেন ক্রোয়েট গোলরক্ষক লিভাকোভিচ। জাপানের দ্বিতীয় শট নিতে আসেন মিতোমা। তার শটও ডান পাশে ঝুকে রুখে দেন তিনি। ক্রোয়েটদের হয়ে লিভায়া একটি শটে গোল করতে মিস করলেও জাপানিজ ইয়োশিদার শট রুখে দিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। শেষে পাসালিচ গোল করে টাইব্রেকারে ক্রোয়েশিয়াকে ৩-১ গোলের অসাধারণ একটি জয় এনে দেন।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২২

X