alo
ঢাকা, শনিবার, ডিসেম্বর ১০, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শেষ মুহূর্তের জোড়া গোলে ইরানের নাটকীয় জয়

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর, ২০২২, ০৬:৪৭ পিএম

শেষ মুহূর্তের জোড়া গোলে ইরানের নাটকীয় জয়
alo

নিউজনাউ ডেস্ক: খেলার শেষ বাঁশি বাজতে তখন বাকি মাত্র ১ মিনিটের মতো। রেফারিও হয়ত খেলা শেষের বাঁশি বাজানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আগের ম্যাচে রীতিমতো বিধ্বস্ত হওয়া ইরান জয়ের জন্য মরিয়া হয়ে ছুটছিল।

ঠিক এমন সময় ওয়েলসের ডি-বক্সের বাইরে বল পেয়ে যান ইরানিয়ান ডিফেন্ডার রোজবেহ চেসমি। কিছু বুঝে উঠার আগেই আচমকা ওয়েলসের গোলমুখে সজোরে শট মারেন চেসমি। আর তাতে খেলার শেষ বাঁশি বাজার কিছু সময় আগে লিড পেয়ে যায় ইরান।

ওয়েলসের হারও তাতে নিশ্চিত হয়ে যায় প্রায়। স্টেডিয়ামে উপস্থিত ওয়েলস দর্শকদের মাথায় হাত পড়ে যায়। দুঃখ শেষ করে মাথা থেকে ওয়েলস দর্শকরা হাত নামাতে যাবেন, ঠিক সেই সময় আবারও আক্রমণ ইরানের। ইনজুরি সময়েই তিন মিনিটের ব্যবধানে ওয়েলসের জালে আবারও গোল করে বসেন ইরানের রামিন রেজাইন।

যার ফলে আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে শেষ পর্যন্ত ২-০ গোল ব্যবধানের জয়ের হাসি হাসে ইরান। ফেভারিট হয়েও হার দেখে মাঠ ছাড়ে গ্যারেথ বেলের ওয়েলস।

ম্যাচের ৮৬ মিনিটে গোলরক্ষক লাল কার্ড পেলে দশজনের দলে পরিণত হয় ওয়েলস। সেই সুযোগটা কাজে লাগিয়ে আক্রমণ চালাতে থাকে ইরান। যোগ করা সময়ের নবম মিনিটে এসে গোল করেন রোজবেহ চেশমি। এর তিন মিনিটের মাথায় আরও এক গোল, এবার জাল কাঁপান রামিন রেজাইন। 

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) আহমেদ আলী বিন স্টেডিয়ামের ম্যাচটি দুই দলের জন্যই ছিল ঘুরে দাঁড়ানোর। শেষ ষোলোর আশা টিকিয়ে রাখতে দ্বিতীয় ম্যাচে জয় দরকার ছিল দুই দলেরই। তবে বেশি তেতে ছিল যেন ইরানই। একে তো প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে বিধ্বস্ত হয়ে যাওয়ার দুঃস্মৃতি। তার ওপর ইরানজুড়ে চলা নারী অধিকার আন্দোলনের পক্ষে নিয়ে প্রথম দিন জাতীয় সঙ্গীতে কণ্ঠ না মেলানো নিয়ে নানামুখী চাপ। 

১৯৫৮ সালের পর প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে নামা ওয়েলস আগের ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছিল। ইরানের বিপক্ষেও তারা ছিল না ছন্দে। অন্যদিকে পার্সিয়ানরা একের পর এক সুযোগ নষ্ট করে হতাশার সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছিল। ৮৬ মিনিটে ওয়েলসের গোলকিপার ওয়েন হেনেসি লাল কার্ড দেখলে খুলে যায় তাদের ভাগ্য।

দ্বিতীয়ার্ধে নির্ধারিত সময়ের সঙ্গে যোগ করা হয় ১৩ মিনিট। আর সেখানেই বাজিমাত করে ইরান। অষ্টম মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে রুজবেহ চেশমি দুর্দান্ত শটে অবিশ্বাস্য গোল করেন। তিন মিনিট যেতেই রামিন রেজাইয়ান করেন দ্বিতীয় গোল।  

তবে ইরানের জন্য প্রথম ৪৫ মিনিটে হতাশার ব্যাপার ছিল। তারা জালের দেখা পেলেও এগিয়ে যেতে পারেনি। পারস্যের দেশটি ১৫ মিনিটে লক্ষ্যভেদ করেছিল। কিন্তু অফসাইডের কারণে গোল বাতিল হয়ে যায়। রবার্টসের বল দখলে নিয়ে ইরানের ঘোলিজাদেহ পাঠান আজমোনকে। তার কাছ থেকে ফিরতি পাসে গোল করেন ঘোলিজাদেহ, কিন্তু ভিএআরে দেখে অফসাইডের বাঁশি বাজান রেফারি।

এর চার মিনিট আগে ওয়েলস দারুণ সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি। ডানপ্রান্ত থেকে রবার্টসের বাড়ানো বলে মুরে পা বাড়িয়ে শট নেন। গোলকিপার হোসেইনি তা ফিরিয়ে দেন দারুণ দক্ষতায়।

নিউজনাউ/এসএইচ/২০২২ 

X