alo
ঢাকা, রবিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রিচার্লিসনে মুগ্ধতা, ব্রাজিলের দারুণ শুরু

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর, ২০২২, ০৩:৩৪ এএম

রিচার্লিসনে মুগ্ধতা, ব্রাজিলের দারুণ শুরু
alo

 

নিউজনাউ ডেস্ক: ব্রাজিলের শুরুটা হলো ছন্নছাড়া, নেইমাররা নিজেদের খুঁজে পেতে কেটে গেল বেশ খানিকটা সময়। তবে গতির উপরই ছিল তারা। প্রথমার্ধেও তারা পেয়েছিল সহজ সব সু্যোগ। তবে অগোছালো ফুটবলে তো আর গোল মানের সোবার হরিণ ধরা দেবে না! দেয়ওনি। 

তবে ব্রাজিলের নাম্বার নাইন রিচার্লিসন প্রথমার্ধে বল স্পর্শ পর্যন্ত করতে পারছিলেন না সেই তিনিই স্বরুপে ধরা দিলেন খেলার দ্বিতীয়ার্ধে। তার মুগ্ধতা ছড়ানো দুটি গোলে হেক্সা জয়ের মিশনটা দারুণ এক জয়ে শুরু করে ব্রাজিল। ম্যাচের ৭৩ মিনিটে রিচার্লিসনের যে গোল তার মোহ ব্রাজিল ভক্তরা তো বটেই ফুটবল অনুরাগীরাও সহজে কাটাতে পারবেন বলে মনে হয় না। ভিনিসিয়ুসের ভাসানো বলটিকে দুর্দান্ত বাইসাইকেল কিকে জালে পাঠান এই স্ট্রাইকার। ঠিক যেন শিল্পীর তুলির আচড়ের মতোই। 

লুসাইল স্টেডিয়ামে ৮৮ হাজারের বেশি দর্শকের সামনে সার্বিয়ার বিপক্ষে বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) রাতে ‘জি’ গ্রুপের ম্যাচটি ২-০ গোলে জিতেছে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল।

স্কোরলাইন দেখে বোঝার উপায় নেই, মাঠের ফুটবল কতটা একপেশে ছিল। ব্রাজিলিয়ানদের প্রবল আক্রমণের মুখে সার্বিয়া তাদের সীমানা থেকে সেভাবে বের হতেই পারেনি।

পরিসংখ্যানেও ফুটে উঠছে তাই। প্রায় ৬০ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের উদ্দেশ্যে ২২টি শট নেয় ব্রাজিল, যার আটটি ছিল লক্ষ্যে। জবাবে সার্বিয়া গোলের প্রচেষ্টা নেয় পাঁচবার, যদিও কোনোটিই তেমন ভাবাতে পারেনি ব্রাজিলের রক্ষণকে।

ম্যাচের ২৭তম মিনিটে প্রথম নিশ্চিত সুযোগ পায় ব্রাজিল। ভিনিসিউসের উদ্দেশ্যে ডি-বক্সে দারুণ থ্রু বল বাড়ান চিয়াগো সিলভা, কিন্তু যথেষ্ট ক্ষিপ্র হতে পারেননি রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড। এগিয়ে এসে বল নিয়ন্ত্রণে নেন গোলরক্ষক ভানিয়া মিলিনকোভিচ-সাভিচ।

সাত মিনিট পর আরেকটি ভালো সুযোগ পায় ব্রাজিল। এবার লুকাস পাকেতার পাস বক্সে পেয়ে গোলরক্ষক বরাবর দুর্বল শট নেন রাফিনিয়া।

৪০তম মিনিটে প্রতিপক্ষের একটি ব্যর্থ আক্রমণ রুখে পাল্টা আক্রমণ শাণায় ব্রাজিল। বল পায়ে বক্সে ঢুকে শেষ মুহূর্তে ডিফেন্ডার নিকোলা মিলেনকোভিচের চ্যালেঞ্জে ঠিকমতো শট নিতে পারেননি ভিনিসিউস।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুটাও প্রথমার্ধের মতোই করে ব্রাজিল। ৪৬তম মিনিটে সার্বিয়ান গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল জালে জড়াতে ব্যর্থ হন রাফিনহা। এরপর ম্যাচের ৫২ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে বল নিয়ে যায় ভিনিসিয়াস। তবে ফিনিশিং ব্যর্থতায় গোল বঞ্চিত হয় ব্রাজিল। ম্যাচের ৫৫ মিনিটে বাম প্রান্ত ধরে বল নিয়ে ক্রস করে ভিনিসিয়াস। ডি বক্সের ভেতরে বল পেয়েও তা জালে জড়াতে ব্যর্থ হয় নেইমার।

ব্রাজিলের একের পর এক আক্রমণ রুখে নিজেদের আক্রমণের কথা যেন ভুলতেই বসেছিল সার্বিয়া। দ্বিতীয়ার্ধের ৫৮তম মিনিটে প্রতি আক্রমণে ওঠে সার্বিয়া। বাঁ দিক থেকে আক্রমণে উঠেও শেষ পর্যন্ত সুবিধা করতে পারেনি তারা। উল্টো আবারও ব্রাজিলের আক্রমণের শিকার হয়। এবার বল পেয়ে ডি বক্সের বেশ দূর থেকে জোরালো শট নেন ফুলব্যাক অ্যালেক্স সান্দ্রো। তবে তার শট গোলপোস্টে লেগে ফিরে আসলে গোল বঞ্চিত হয় ব্রাজিল।

মিনিট চারেক পরে ম্যাচের ৬২ মিনিটে ব্রাজিলের অপেক্ষার অবসান হয়। বাঁ দিক থেকে আক্রমণে উঠেন ভিনিসিয়াস জুনিয়র। ডি বক্সে কাট ইন করে ঢুকে দারুণ এক শট নেন। তবে তার শট রুখে দেন সার্বিয়ান গোলরক্ষক। আর ফিরতি বল ছয় গজের ভেতর পেয়ে লক্ষ্যভেদ করে ব্রাজিলকে উল্লাসে ভাসান রিচার্লিসন।

এক গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর আরও যেন মরিয়া হয়ে ওঠে ব্রাজিল। দুর্দান্ত সব আক্রমণে সার্বিয়ান রক্ষণদূর্গের ফাটল দিয়ে ঢুকে যাছিল বারবার। তবে শেষটা টানতে পারছিল না। প্রথম লক্ষ্যভেদের পর দ্বিতীয় গোলের জন্য অপেক্ষা মাত্র ১০ মিনিটের। ভিনিসিয়াস জুনিয়রের দুর্দান্ত এক আক্রমণ বাঁ দিক থেকে। বল নিয়ে এগিয়ে গিয়ে ডি বক্সের ভেতর থেকে বুটের বাইরের প্রান্ত দিয়ে দারুণ এক ক্রস। আর সেই ক্রস দেখতে পেয়ে প্রথমে এক পা দিয়ে বল থামিয়ে নিয়ে লাফিয়ে উঠে বাই সাইকেল কিকে দ্বিতীয়বারের মতো বল জালে জড়ালেন রিচার্লিসন। আর তাতেই ব্রাজিল এগিয়ে গেল ২-০ গোলের ব্যবধানে।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২২

X