alo
ঢাকা, বুধবার, ফেব্রুয়ারী ৮, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ২৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে 'প্রত্যাশিত' দুই ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না ভারত

প্রকাশিত: ১৪ অক্টোবর, ২০২২, ১২:৫৯ পিএম

বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে 'প্রত্যাশিত' দুই ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না ভারত
alo

 

নিউজনাউ ডেস্ক: আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ স্কোয়াডে পেস বোলার নিয়ে আগে থেকেই বেশ ঝামেলায় আছে ভারত। বুমরাকেও না পাওয়ার রয়েছে জোর সম্ভাবনা। এরমধ্যেই আসল আরেক খবর।

ভিসা সমস্যার জন্য অস্ট্রেলিয়া যেতে পারছেন না দুই পেস বোলার। এই দুই বোলারকে না পাওয়ায় রোহিত শর্মাদের বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতে প্রভাব পড়তে পারে।

অস্ট্রেলিয়ার উইকেটে দ্রুত গতির বলের সঙ্গে মানিয়ে নিতে উমরান মালিক এবং কুলদী সেনকে সে দেশে পাঠানোর পরিকল্পনা ছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের। গতির জন্য দু’জনেই নজর কাড়েন গত আইপিএলে। কিন্তু সেই পরিকল্পনা বাতিল করা হয়েছে। এখনও ভিসা না পাওয়ায় উমরান এবং কুলদীপকে অস্ট্রেলিয়ায় না পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বোর্ড। আবেদন করতে দেরি হওয়াতেই তাঁদের ভিসা এখনও মঞ্জুর হয়নি।

বোর্ডের নির্দেশ মতো উমরান এবং কুলদীপ ৫ অক্টোবর মুম্বইয়ের নির্দিষ্ট হোটেলে পৌঁছে যান। তার পর তাঁদের বাড়ি ফিরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

বিসিসিআইয়ের পক্ষে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, ‘উমরান এবং কুলদীপ অস্ট্রেলিয়ায় যাচ্ছে না। ১৭ অক্টোবরের পর আইসিসির তরফ থেকে নেট বোলারের ব্যবস্থা করা হবে। বাকিরা দ্রুত দলের সঙ্গে যোগ দেবে। উমরান এবং কুলদীপের ভিসার জন্য যথেষ্ট চেষ্টা করা হয়েছিল। তবু ভিসা পাওয়া যায়নি। ওদের সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফি খেলার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

ভারতীয় দলের প্রস্তুতির জন্য নেট বোলার হিসাবে চার জন পেস বোলারকে অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বোর্ড। চেতন সাকারিয়া এবং মুকেশ চৌধুরির সঙ্গে ছিলেন উমরান, কুলদীপও। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে খেলোয়াড় বিনিময় চুক্তির অংশ হিসাবে সাকারিয়া এবং কুলদীপ আগে থেকেই অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছেন। তাঁরাই নেট বোলার হিসাবে রোহিতদের অনুশীলনে সাহায্য করবেন। ১৫ জনের মূল দলের বাইরে চার জন ক্রিকেটারকে রিজার্ভ হিসাবে রাখা হয়। 

সেই তালিকায় ছিলেন মহম্মদ শামি, শ্রেয়স আয়ার, দীপক চাহার এবং রবি বিষ্ণোই। চোটের জন্য যশপ্রীত বুমরা এবং দীপক চাহার ছিটকে যাওয়ায় মহম্মদ সিরাজ এবং শার্দূল ঠাকুরকে রিজার্ভ হিসাবে অস্ট্রেলিয়ায় পাঠানো হয়েছে। শামি এবং সিরাজের মধ্যে এক জন মূল দলে ঢুকবেন বুমরার পরিবর্ত হিসাবে। রিজার্ভ হিসাবে যে দু’জন জোরে বোলার থাকবেন তাঁদের উমরান এবং কুলদীপের বদলে নেট বোলার হিসাবে ব্যবহার করা হতে পারে।

আইসিসির পরামর্শ অনুযায়ী মূল দলের ১৫ জন এবং রিজার্ভ চার জন ক্রিকেটারের ভিসা দ্রুত মঞ্জুর করছে অস্ট্রেলিয়া প্রশাসন। নেট বোলারদের ব্যাপারে আইসিসির নির্দিষ্ট কোনও বক্তব্য নেই। তাই তাঁদের ভিসার ক্ষেত্রে তেমন তৎপরতা দেখাচ্ছে না অস্ট্রেলিয়া। উমরান এবং কুলদীপের নাম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বোর্ডের সরকারি তালিকায় না থাকাও সমস্যার অন্যতম কারণ।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২২

X