alo
ঢাকা, সোমবার, নভেম্বর ২৮, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

'পুরো সংসদ চিড়িয়াখানায় পরিণত হয়েছে'

প্রকাশিত: ০৯ অক্টোবর, ২০২২, ১২:৩৪ এএম

'পুরো সংসদ চিড়িয়াখানায় পরিণত হয়েছে'
alo

 

চট্টগ্রাম ব্যুরো: সংসদ চিড়িয়াখানায় পরিণত হয়েছে‍ বলে মন্তব্য করেছেন কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক।

শনিবার (৮ অক্টোবর) দুপুরে নগরের জামালখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, দেশে সুষ্ট রাজনীতির পরিবেশ দরকার। বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি দেশে প্রধান তিনটি রাজনৈতিক দলকে বাদ দিয়ে নয়, তাদের অতিরিক্ত দল হিসেবে দেশের জনগনের অধিকার আদায়ের জন্য লড়াই করতে চাই। আপনারা দেখবেন পুরো সংসদ চিড়িয়াখানায় পরিণত হয়েছে। গঠন মূলক আচরণ ও কথাবার্তা এখন নেই। এই দেশকে যদি বাঁচাতে হয় পরিপূর্ণ রাজনীতির চর্চা করতে হবে।

তিনি বলেছেন, ২০ দলীয় সরকার আমলে প্রতিষ্ঠা হয় বলে তৎকালীন সরকারের অংশ হিসেবে বিবেচনা করা হতো কল্যাণ পার্টিকে। সেই তকমা থেকে কল্যাণ পার্টিকে আলাদা করতে চার বছর সময় লেগেছিল। কল্যাণ পার্টি রাজা প্রার্টি নয় প্রজার প্রার্টি। সুশাসন প্রতিষ্ঠায় এবার নির্বাচনে অংশ করবো।

এক-এগারোর প্রেক্ষাপটে গড়ে ওঠা রাজনৈতিক দল কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘বিএনপি জোট রাজনীতিকে গৌণ মনে করছে। বিএনপি ২০–দলীয় জোটকে গৌণ দৃষ্টিতে দেখছে, মুখ্য দৃষ্টিতে নয়। জোটের প্রধান শরিক বিএনপি এখন বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলার লক্ষ্যে এগুচ্ছে।’


বিজ্ঞাপন
বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, ‘২০ দলীয় জোট আছে বললেও সত্য, আবার নেই বললেও সত্য। বাংলাদেশে জোট রাজনীতি অপরিহার্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিএনপি প্রধান শরিক হিসেবে যদি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে যে- তারা প্রধান শরিক হিসেবে থাকবে না, তাহলে ভিন্ন পরিস্থিতিতে কল্যাণ পার্টি কী করবে তা এখন বলা যাচ্ছে না।’

সরকারি দপ্তর থেকে শুরু করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর লোক উল্লেখ করে তিনি বলেন, নিরপেক্ষ পরিবেশ এখন চাইলেও পাবেন না। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা বলতে কিছু নেই। ঘর থেকে বের হলে আবার সুস্থ শরীরে ফিরতে পারবেন তার কোনও গ্যারান্টি নেই। আমরা আশা করছি নতুন প্রজন্ম দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে আমাদেরকে আলোর দিশা দেখাবে। সাহসী মেধাবী তরুণদের হাত ধরেই রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন আসবে।

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বলেন, স্বাধীনতার পঞ্চাশ বছরেও দেশে ভোটের অধিকার ও ভাতের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়নি। সাহসী মেধাবী তরুণদের হাত ধরেই রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তন আসবে। বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি কারণে কোনও শত্রুতা তৈরি হোক সেটা কামনা করেনা। আমরা ভারসাম্যপূর্ণ পররাষ্ট্রনীতির পক্ষে। যে সকল দেশের সাথে যোগাযোগ নেই সে সকল দেশের সাথে যোগাযোগ তৈরি করতে হবে। অনিয়ম দুর্নীতিতে দেশটা ডুবছে সিন্ডিকেট ব্যবসা চাঁদাবাজি সর্বোপরি ব্যাংক লোপাট করে বিদেশে অর্থ পাচার কোনওভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। এই সরকার ব্যর্থতার ষোলকলা পূর্ণ করেছে। একটি নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন করে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। সকল বিরোধী রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও দলগুলোর দাবির প্রতি আমরা একাত্মতা ঘোষণা করছি। তাদের এবার বিদায় নেওয়ার সময় হয়েছে।

আগামী নির্বাচনে কল্যাণ পার্টি ৫০টি আসনে প্রার্থী দেবে বলে জানান সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম।

এছাড়াও মিট দ্যা প্রেস সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির স্থায়ী কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইলিয়াছ, যুগ্ম মহাসচি আবদুল্লাহ আল হাসান সাকিব, চট্টগ্রাম মহানগর সভাপতি সাজিদ ইসলাম ইকবাল, সেক্রেটারী এ্যাডভোকেট মামুন জোয়ার্দারসহ আরও অনেকে।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২২

X