কালেরকণ্ঠের সম্পাদক হতে বলেছিলেন শাহ আলম

রোহিঙ্গা সংকট

নাঈমুল ইসলাম খান: [১] একসময় জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আবেদ খান দৈনিক ‘কালের কণ্ঠ’ পত্রিকার সম্পাদক ছিলেন। যেকোনো কারণেই ২০১১ এর শুরুতে আবেদ খানকে কালের কণ্ঠ ছেড়ে যেতে হয়।
[২] এমতাবস্থায় ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’ এর সম্পাদক নঈম নিজাম আমাকে প্রস্তাব করেন কালের কণ্ঠের সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নিতে। এজন্য কথা বলতে, তিনি আমাকে বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান আহমেদ আকবর সোবহান এর সাথে এক মধ্যাহ্নভোজে আমন্ত্রণ জানান।
[৩] আহমেদ আকবর সোবহান (শাহ আলম) ও তার দুই সন্তানের সাথে আমার পূর্ব পরিচয় এবং ভালো সম্পর্ক রয়েছে। আমি সানন্দে গেলাম বসুন্ধরা গ্রুপের কর্পোরেট অফিসে। কিছু সময় আড্ডা দিয়ে দুপুরের খাবার খেলাম এক সাথে। সঙ্গে ছিলেন নঈম নিজামও, একথা বলার অপেক্ষা রাখে না।
[৪] অবশেষে শাহ আলম ভাই অত্যন্ত আদর করে আমাকে অনুরোধ করলেন ‘কালের কণ্ঠ’ এর সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নিতে। আমি তাকে বললাম, আমার উপর আপনার আস্থা, আমার প্রতি আপনার ভালোবাসা, আমার ব্যাপারে আপনার আগ্রহ এবং আমাকে কালের কণ্ঠের সম্পাদক হওয়ার প্রস্তাবে আমি আনন্দিত ও গর্বিত।
[৫] আমি তখন সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলাম আর চাকুরে সম্পাদক হবো না, কেবল এজন্যই কালের কণ্ঠের দায়িত্ব আমি শেষ পর্যন্ত নিইনি।
[৬] বাংলাদেশের শীর্ষ স্থানীয় কথা সাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন দৈনিক কালের কণ্ঠেই কর্মরত ছিলেন। সম্ভবত যুগ্ম সম্পাদক পদে। নঈম নিজামের প্রস্তাব ও প্রেরণায় পরবর্তীতে ইমদাদুল হক মিলনই হন কালের কণ্ঠের সম্পাদক।

অনুলেখক : ফাহমিদা তিশা
রচনার তারিখ: ১৮ জানুয়ারি ২০২১ (লেখাটি ফেসবুক থেকে নেওয়া)

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
Loading...
বেসরকারি হাসপাতালের সেবামূল্য নির্ধারণ করবে সরকার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী-ইউপি নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি: মির্জা ফখরুল-দেশে করোনায় মৃত্যু ৮, নতুন শনাক্ত ৩৮৫-সংঘর্ষ, বর্জনে শেষ হলো পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ, চলছে গণনা-তামিম-রিয়াদরা দ্বিতীয় কোভিড টেস্টেও নেগেটিভ-মিয়ানমারে পুলিশের গুলিতে নিহত ৬-মমতাকে উৎখাতের হুঙ্কার দিয়ে ব্রিগেড শুরু-কার্টুনিস্ট কিশোরের রিমান্ড নামঞ্জুর-‘শিক্ষিত ও দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে সরকার বদ্ধপরিকর’-মূল্য সূচকের উত্থানে লেনদেন শুরু