বাঁশখালী বিক্ষোভে গুলিবিদ্ধ আরও দুই শ্রমিকের মৃত্যু, মোট ৭

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে এস আলমের বিদ্যুৎকেন্দ্রে শ্রমিকের বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে আহত আরও দুই শ্রমিক চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন। এই ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ৭ জনে দাঁড়িয়েছে।

বুধবার (২১ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬ টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের আইসিইউতে মারা যান শিমুল আহমেদ (২৩) নামের একজন শ্রমিক। তিনি মৌলভীবজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার আব্দুল মালেকের সন্তান। বাঁশখালী থানার ওসি শফিউল কবির শিমুলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শিমুল আহমেদ নামে এক শ্রমিক সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

এর আগে মঙ্গলবার ভোরে চট্টগ্রামের পার্কভিউ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গিয়েছিলেন রাজেউল ইসলাম (২৫) নামে অপর এক শ্রমিক।তিনি দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার বেতদীঘি ইউনিয়নের নথন জামদানি গ্রামের দিনমজুর আব্দুল মান্নান মণ্ডলের ছেলে এবং বাঁশখালীর এস আলম গ্রুপের পাওয়ার প্লান্টের বয়লারের ফিল্টারম্যান হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রিয়াজ উদ্দিন।

তিনি বলেন, ‌‌গুলিবিদ্ধ শ্রমিকদের মধ্যে একজন ছিলেন ফুলবাড়ীর রাজেউল ইসলাম। তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চট্টগ্রামের পার্কভিউ হাসপাতালে ভর্তি করান। রবিবার তার অপারেশন করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোরে তিনি দিকে মারা যান।

উলেক্ষ, গত শনিবার (১৭ এপ্রিল) সকাল থেকে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বেতন-ভাতা সংক্রান্ত বিক্ষোভ থেকে সংঘর্ষের ঘটনায় পাঁচ শ্রমিক নিহত হয়। এতে ১৭ জন গুলিবিদ্ধসহ আরও ৩০ জনের অধিক আহত হয়েছে।

নিহতরা হলেন- আহমদ রেজা (১৮), রনি হোসেন (২২), শুভ (২৪), মো. রাহাত (২৪) ও রায়হান (২৫), শিমুল (২৩), রেজাউল (২৫)।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: