রামপালে করোনা পরিস্থিতিতে এনজিও’র ঋণের কিস্তি আদায় বন্ধ

রামপাল (বাগেরহাট) প্রতিনিধি: চলমান সর্বাত্মক লকডাউন পরিস্থিতিতে উপজেলা-ব্যাপী লোনের কিস্তি সংগ্রহ না করতে বিভিন্ন এনজিওকে নির্দেশনা দিয়েছেন রামপাল ইউএনও মোঃ কবির হোসেন ৷

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সকালে তিনি রামপাল উপজেলা প্রশাসনের ফেসবুক পেজে এ সম্পর্কিত একটি বার্তা পোষ্ট করেন ৷ এই ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ী এবং জনসাধারণের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে ৷

গতবছর করোনা পরিস্থিতির কারনে এনজিওগুলোকে কিস্তি আদায় বন্ধ রাখতে সরকারীভাবে নির্দেশনা প্রদান করলেও , মাঠ পর্যায় থেকে তাদের বিরুদ্ধে কিস্তি আদায়ের অভিযোগ উঠেছিলো ৷

এবারও সর্বাত্মক লকডাউনে ক্ষুদ্র ও মাঝারী ব্যবসায়ীরা দোকানপাট খুলতে না পারায় একদিকে যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন তেমনি অপরদিকে গ্রামীণ নারী উদ্যোক্তাতাদের আয়ে বিরূপ প্রভাব পড়তে শুরু করেছে ৷ তাদের অনেকেই বিভিন্ন এনজিওর ঋণের বেড়াজালে আবদ্ধ ৷ এই পরিস্থিতিতে আয়ের উৎস সীমিত হয়ে পড়ায় রীতিমতো বিষফোড়া হয়ে দাড়িয়েছে ঋণের কিস্তি ৷ অনেক এনজিওর গ্রাহকদের অভিযোগ তারা ঋণ দেয়ার পর করোনা পরিস্থিতির মাঝেই অমানবিক আচরণ করে কিস্তি আদায়ের জন্য গ্রাহককে চাপ দিতে থাকে ৷

স্থানীয় বেশ কয়েকজনের ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, করোনার কারনে গত বছর থেকেই তাদের ব্যবসায় প্রচুর লস হলেও , ঋণের কিস্তি পিছু ছাড়েনি ৷ কিছুটা ক্ষতি পোষাতে ঈদকে সামনে রেখে আবারও স্থানীয় আশা, নবলোক, আরআরএফ সহ বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়েছিলেন তারা ৷ হঠাৎ করেই করোনা পরিস্থিতির কারনে লকডাউন তাদের ঘুরে দাড়ানোর স্বপ্নকে মাটি করে দিয়েছে ৷ তার উপর এসব এনজিও আবার ঋণের কিস্তির জন্য উপুর্যপরী চাপ দিচ্ছে ৷ এরই মাঝে এনজিওগুলোর কিস্তি আদায় বন্ধ রাখার সরকারী নির্দেশনার খবরে স্বস্তি ফিরে পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন ৷

এ ব্যাপারে ইউএনও মোঃ কবির হোসেন এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “চলমান লকডাউন পরিস্থিতিতে মানুষ রুটি রুজির জন্য বের হতে পারছেনা , সুতরাং তাদের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে বাগেরহাট জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা স্থানীয় এনজিওগুলোর কাছে কিস্তি আদায় বন্ধ রাখতে অনুরোধ জানিয়েছি ৷

পরবর্তীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তারা কার্যক্রম চালু করতে পারে ৷ গত বছর করোনা পরিস্থিতির কারনে অনেকেই কষ্ট পেয়েছেন ৷ সেসব বিবেচনা করে এই অনুরোধ জানানো হয়েছে ৷

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: