বরিশালে রিক্সা আটকের ঘটনায় শ্রমিক নেত্রী মনীষার প্রতিবাদ

বরিশাল ব্যুরো: বৈশ্বিক মহামারি করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিয়ে সপ্তাহব্যাপী সরকার ঘোষিত লকডাউনের সপ্তম দিনে বরিশাল নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ট্রাফিক পুলিশ দায়িত্ব পালনকালে দিন-মজুর শ্রমিকদের পায়ে চালিত অতিরিক্ত রিক্সা বন্ধ করতে রিক্সা থেকে গদি খুলে নেয়ার কারনে শ্রমিক নেত্রী ও ট্রাফিক সার্জেন্টের সাথে বাক-বিতণ্ডা ও রিক্সা শ্রমিকদের বিক্ষোভ প্রদর্শনের ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (২০ই) এপ্রিল সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে নগরীর কাকলীর মোড় এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট সঞ্জীব সহ বিভিন্ন ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা প্রায় ২৫ থেকে ৩০টি রিক্সা আটক করেন।

এক পর্যায়ে ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা রিক্সা থেকে গদি খুলে নিয়ে ট্রাফিক বক্সে রেখে দেয়। এ-ঘটনায় দিন-মজুর রিক্সা শ্রমিকরা উত্তপ্ত হয়ে উঠে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান বরিশাল নগরীর শ্রমিকের বন্ধু বাসদ বরিশাল জেলা কমিটির সদস্য ডাঃ মনীষা চক্রবর্তী।এসময় কেন রিক্সা আটক ও গদি খুলে নেয়ার কারন সার্জেন্ট সঞ্জীবের কাছে যানতে চান তিনি।

এসময় ট্রাফিক সার্জেন্ট সঞ্জীবের সাথে মনীষা চক্রবর্তীর সাথে কিছুটা কথা কাটাকাটির সৃষ্টি হয়। সঞ্জীব বলেন তারা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে এবং নগরীতে লকডাউনে মধ্যে অতিরিক্ত রিক্সা চলাচল বেড়ে যাওয়া ও তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে এই অভিযান।

এসময় মনীষা চক্রবর্তী বলেন আমরাও চাই লকডাউন গুরুত্ব সহকারে পালন করা হোক। সেখানে গরিব দিন-মজুর শ্রমিকদের পেটে লাথি দিয়ে নয়।

ওনারা সাধারণ দিন মজুরের রিক্সা আটক করে লকডাউন বাস্তবায়ন করছেন। অন্যদিকে দামী দামী প্রাইভেট কার, মোটর সাইকেল নিয়ে অহরহ ঘোড়া ফেরা করছেন তাদের ধরছেন এমনকি তাদের গাড়ি আটকাতে দেখা যায়না।

এসময় উত্তেজিত রিক্সা শ্রমিকরা বিক্ষোভ প্রদর্শন শুরু করেন। পরবর্তীতে আটক রিক্সার গদিগুলো ফিরিয়ে দিলে রিক্সা শ্রমিকদের উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণে আসে।

এসময় বেশ কিছু রিক্সা চালক উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে কান্না কণ্ঠে বলেন আজ তিনদিন যাবত ভাত কি জিনিস তারা সহ তাদের পরিবার দেখে না।

তাই আজ ঘড়ের মানুষগুলোর কান্না সহ্য করতে না পেরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রিক্সা নিয়ে রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছেন তারা।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
1
+1
3
+1
0
+1
3
+1
2
+1
1
+1
2
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: