বিমান চলাচল বন্ধ থাকায় পদ্মা রেল প্রকল্পে প্রভাব

নিউজনাউ ডেস্ক: দেশে সাত দিনের ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ এর কারনে বিমান চলাচল বন্ধ থাকায় পদ্মা রেল সংযোগের প্রকল্পের কাজ ব্যহত হচ্ছে বলে জানিয়েছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশন (সিআরইসি)।

প্রতিষ্ঠানটির নিযুক্ত জনসংযোগ প্রতিষ্ঠান শনিবার বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, ফ্লাইট স্থগিতের নীতি সরকারের অগ্রাধিকারের (ফাস্ট ট্র্যাক) এ প্রকল্পের অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করছে। ফ্লাইট চালুর অনুরোধ জানিয়েছে সিআরইসি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প চীন ও বাংলাদেশের মধ্যকার গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প। বর্তমানে পুরোদমে প্রকল্পের কাজ চলছে। তাই প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের প্রায়ই চীন এবং বাংলাদেশের যাতায়াত করতে হয়। ৩০ জন কর্মকর্তাকে প্রতি সপ্তাহে আসা যাওয়া করতে হয়। যাদের মধ্যে রয়েছেন প্রকল্প পরিচালক, সুরক্ষা ও মান যাচাই এবং কারিগরি নির্মাণ কর্মকর্তাদের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা ব্যক্তিরা।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা যদি চীন থেকে নির্মাণ এলাকায় সময়মতো ফিরতে না পারেন, তবে বেশ কয়েকটি কাজ বাস্তবায়ন কঠিন হয়ে পড়বে। কিছু কাজ বাধ্য হয়ে স্থগিত করতে হবে। যা নির্মাণ অগ্রগতিতে সরাসরি নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। করোনা মহামারি সত্বেও চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে চীন ও বাংলাদেশের মধ্যে বাণিজ্যসহ অন্যান্য কার্যক্রম বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে চীনে করোনা পরিস্থিতি কার্যকরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। চীন থেকে যেসব কর্মীরা বাংলাদেশে এসেছেন, তারা সবাই দুই ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন। তাই তারা বাংলাদেশে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি তৈরি করবেন না। বাংলাদেশ সরকার যদি ভবিষ্যতে ফিরে আসা চীনা কর্মীদের জন্য নির্ধারিত স্থানে কোয়ারান্টাইনের নীতিমালা তৈরি করে, তবে তারা আর বাংলাদেশে আসতে চাইবেন না। এই বিষয়গুলো প্রকল্পের অগ্রগগিতে মারাত্মক প্রভাব ফেলেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বিমান চলাচল স্থগিতের ফলে প্রকল্পের জন্য অর্ডার করা ইস্পাত বিম, বার ও ভূ-প্রযুক্তিগত সামগ্রী বহনকারী নৌযানের জট দেখা দিয়েছে। এছাড়াও, উচ্চ পোর্ট ডেমারেজ ফি, অতিরিক্ত পোর্ট স্টোরেজ চার্জ ও জ্বালানি চার্জের কারণে মারাত্মক আর্থিক ক্ষতিসাধন করেছে। ইস্পাত বিম, রেল এবং আরও জিনিসপত্র আসতে বিলম্বিত হয়েছে।

সিআরইসি সরকারের মহামারি প্রতিরোধ বিধি অনুসরণ করবে। তবে স্থানীয় সাব কনট্রাকটর এবং পাঁচ হাজার কর্মীর পরিবারের কল্যাণে পদ্মা রেল সংযোগ প্রকল্পের কাজ কার্যকরভাবে শেষ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এসব বিবেচনায় সিআরইসি চীন ও বাংলাদেশের মধ্যে বিমান চলাচল চালু করার আবেদন জানাচ্ছে।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: