ফরিদপুরে ২ ইউনিয়নের সংঘর্ষে আহত ২০

ফরিদপুর ব্যুরো: ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় শালিষে বসা নিয়ে আজিমনগর ও কালামৃধা ইউনিয়নের মাঝে সংঘর্ষে হলে উভয় পক্ষের নারী পুরুষসহ কমপক্ষে ২০ ব্যক্তি আহত হয়েছে।

গুরুতর আহত ৩ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ সময় ভাংচুরে কয়েকটি ঘরবাড়ী ও এবং দশ থেকে বারোটি দোকান তছনছ হয়ে যায় । বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দফায় দফায় এই সংঘর্ষ চলে।
এলাকাবাসীরা জানায় ,গত ১ সপ্তাহ আগে আজিমনগর ইউপির পাতরাইল গ্রামের জসিম মাস্টারের ছেলে আজিজুলের মোটরসাইকেলের সাথে কালামৃধা ইউনিয়নের মিয়াপাড়া গ্রামের মনার ছেলের অটোবাইকে ধাক্কা লাগে। সেই জেরে মিয়া পাড়ার সাবেক চেয়ারম্যান নুরুল হকের দলের লোকেরা জসিম মাস্টার কে মারধর করে।

এরই রেশ ধরে বিচার করতে বুধবার সকাল ১০টায় আজিমনগর শিমুলবাজার ইউপি ভবনের সামনে অভিযুক্ত দুই জেলার গণ্যমান্য ব্যক্তি নিয়ে শালিষ বৈঠকের আয়োজন করা হয়।
আজিমনগর স্থানীয় চেয়ারম্যান মোতালেব মাতুব্বর তার চেয়ারে এক পক্ষের দল নেতা নুরুলহককে বসালে অন্য পক্ষ (জসিম মাস্টার) শালিষ বর্জন করেন।

আর তখনই দেশীয় অস্ত্র নিয়ে দুই দলের ছেলেরা শুরু করে সংঘর্ষ। প্রায় ৩ ঘন্টা সময় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলতে থাকে। খবর পেয়ে নিকটবর্তী ভাঙ্গা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে স্থানীয়দের সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

পুলিশ জানায়, এখনও কোন পক্ষ থানায় আসেনি। অভিযোগ পেলে মামলা নেয়া হবে। এলাকায় সংঘর্ষ এড়াতে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

নিউজনাউ/এসএইচ/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: