NewsNow24.Com
Leading Multimedia News Portal in Bangladesh

মেয়র আইভির সুদিন আসছে !

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বিশেষ প্রতিনিধি

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আসন্ন জাতীয় কাউন্সিলের যতই দিন ঘনিয়ে আসছে ঠিক ততটাই দলের নেতা-কর্মীদের মাঝে উৎসাহ-উদ্দিপনা বাড়ছে। এবারের কাউন্সিলে বেশ কয়েকজন নারী কাঙ্খিত পদ পেতে যাচ্ছেন বলে দলের অভ্যন্তরে বেশ গুঞ্জন রয়েছে। আলোচনায় জোর গুঞ্জন নারায়নগঞ্জের আলোচিত নেতা শামীম ওসমানকে পেছনে ফেলে কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেতে যাচ্ছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী। দলের দুর্দিনে নারায়ণগঞ্জে তৃণমূল পর্যায়ে কাজ করে জনগণের চোখে মনি হতে পেরেছেন তিনি। দেশের প্রথম সিটি কর্পোরেশন এর মেয়র ডাঃ আইভী।
১৯৯৩ সাল থেকে ডাঃ আইভীর রাজনৈতিক যাত্রা শুরু হয়েছিল শহর আওয়ামীলীগের স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদিকা হিসেবে। ২০০৩ সালে তিনি অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার মধ্যে দিয়ে তাঁর রাজনৈতিক জীবনের সূত্রপাত। বৈরী রাজনৈতিক পরিবেশে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে যখন শামীম ওসমান দলের নেতাকর্মীদের ফেলে রাতের আঁধারে বিদেশ পাড়ি জমান-তখন ডাঃ আইভী জুনিয়র নেতা হয়েও শক্তহাতে দলের হাল ধরেন।
জেলা ও শহর আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা তখন ডাঃ আইভীকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক কর্মকান্ড পরিচালনা করতেন। দুঃসময়ে দেশে ফিরে নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে ডাঃ আইভী একই সময় পৌরসভা ও দলের জন্য কাজ করে নিজেকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যান। ডাঃ আইভীর সাহচর্য্য ও নির্দেশনায় আওয়ামীলীগের উত্তর-দক্ষিণের নেতারা সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়েছিলেন।
বিদেশ পালিয়ে থাকা শামীম ওসমানও ছোট বোন সম্বোধন করে আইভীর গুণকীর্তন করতেন। একটা দীর্ঘ সময় দলের হাল ধরে বিপদের মুখে থাকা নেতাকর্মীদের সেফজোনে রেখে ও পৌরসভার উন্নয়ন করে তিনি সকলকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন বলে মনে করেন বোদ্ধামহল।
তাদের মতে, ডাঃ আইভীর রাজনীতিতে প্রবেশ, পৌর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়া, শক্তহাতে দলের হাল ধরা, নিজে জনপ্রিয় হওয়ার সাথে সাথে আওয়ামীলীগের জনপ্রিয়তা বাড়িয়ে-ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেন। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গুডবুকে ঠাঁই পেতে বেগ পাননি আইভী। কেন্দ্রীয় অন্যান্য নেতারাও পৌরপিতা চুনকা’র সুযোগ্যা কন্যা ডাঃ আইভীর যোগ্যতায় মুগ্ধ। পৌরসভা থেকে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে উন্নীত হওয়ার মধ্য দিয়েও দেশের প্রথম নারী মেয়র নির্বাচিত হন তৃণমূলের কাছে তুমুল জনপ্রিয় নেত্রী ডাঃ আইভী।
পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপমন্ত্রীর পদ মর্যাদা দেন ডাঃ আইভীকে। সাম্প্রতিক সময়ে নারায়ণগঞ্জের উন্নয়ন করে আওয়ামীলীগের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি করে তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক হিসেবে নিজেকে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন। বিগত সময়ে ডাঃ আইভী নারায়ণগঞ্জে তৃণমূল পর্যায়ে যেভাবে দলের জন্য কাজ করেছেন তার একটা মূল্যায়ন এবার করা হবে ডাঃ আইভীকে কেন্দ্রে পদ দিয়ে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আপনার মতামত জানান

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More