এবার মিয়ানমারের সাথে সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন করলো অস্ট্রেলিয়া

নিউজনাউ ডেস্ক: চলমান সামরিক অভ্যুত্থান এবং নিহতের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ জানিয়ে মিয়ানমারে সাথে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা কর্মসূচি ছিন্ন করেছে অস্ট্রেলিয়া। একই সঙ্গে বেসামরিক মানুষের ওপর সহিংসতা চালানো থেকে বিরত থাকতে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ম্যারিজ পায়ান। খবর আল জাজিরা।

গত ১ ফেব্রুয়ারি অভ্যুত্থানের পর থেকেই মিয়ানমারের সামরিক সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলছে। নাগরিক অসহযোগ আর নিয়মিত বিক্ষোভে অচল হয়ে পড়েছে দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশটি। বিক্ষোভ দমনে সামরিক সরকার কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে। নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এখন পর্যন্ত অর্ধশতাধিক নিহতের কথা জানা গেছে। বেশ কয়েকটি পশ্চিমা দেশ ও জোট ইতোমধ্যে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিয়েছে।

তারই ধারাবাহিকতায় এবার মিয়ানমারের সঙ্গে সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন করে অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ম্যারিজ পায়ান বলেন, ‘আমরা মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীকে ধৈর্য্য ধারণ এবং বেসামরিক নাগরিকদের বিরুদ্ধে সহিংসতা চালানো থেকে বিরত থাকার আহ্বান অব্যাহত রাখছি।’

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার দ্বিপাক্ষিক সামরিক সম্পর্ক যুদ্ধ সংক্রান্ত নয় এমন বিষয়গুলোতে সীমাবদ্ধ ছিলো। ২০১৭ সালে রাখাইনে রোহিঙ্গা বিরোধী অভিযানের পরও ওই সম্পর্ক চালিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। এদিকে লন্ডনভিত্তিক বার্মা ক্যাম্পেইনের নির্বাহী পরিচালক আন্না রবার্টস বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া শেষ পর্যন্ত এমন একটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির অবসান ঘটালো যা প্রথমেই শুরু করা ঠিক হয়নি।’ তিনি বলেন, আরও ১২টি দেশ মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর সঙ্গে প্রশিক্ষণ ও সহযোগিতার সম্পর্ক বজায় রেখেছে। মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে যারা প্রশিক্ষণ দিচ্ছে তারাই দেশটির সামরিক কর্তৃপক্ষের পক্ষ নিচ্ছে। আর এই সেনাবাহিনী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি চালাচ্ছে।

নিউজনাউ/এবিএ/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: