কর্ণফুলীতে মর্টার শেল উদ্ধার, নিস্ক্রিয় করলো সেনাবাহিনী (ভিডিও)

কর্ণফুলী প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদী থেকে উদ্ধার হওয়া ‘মুক্তিযুদ্ধের সময়কার’ একটি মর্টার শেল নিস্ক্রিয় করা হয়েছে। জেলেদের জালে আটকে যাওয়া মর্টার শেলটি নিস্ক্রিয় করেছে সেনাবাহিনীর বোম্ব ডিসপজাল ইউনিট।

সোমবার (১ মার্চ) দুপুর দেড়টায় কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের ইছানগর গ্রামের একটি খোলা বালুরমাঠে মর্টার শেলটি নিস্ক্রিয় করা হয়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত শনিবার বিকেলে কর্ণফুলী নদীতে ফিশিং বোটে করে মাছ শিকারে যাওয়া জেলেদের জালে মর্টার শেলটি আটকে যায়। প্রায় ৩০ কেজি ওজনের মর্টার শেলটি তারা লোহার কুণ্ডলী ভেবেছিলেন। ইছানগর এলাকায় একটি ভাঙ্গারির দোকানে শনিবার রাতে তারা সেটি বিক্রি করতে যায়। কিন্তু ভাঙ্গারির দোকানের মালিক দেখেই বুঝতে পারেন যে, সেটি বিস্ফোরক জাতীয় কিছু। তখন তিনি ৯৯৯ নম্বরে কল করে বিষয়টি জানান।

কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ নিউজনাউকে জানান, খবর পেয়ে আমরা ওই দোকানে গিয়ে মর্টার শেলটি উদ্ধার করে ইছানগরে এস আলম বালুর মাঠে নিয়ে যাই। গতকাল (রোববার) সিএমপির বোম্ব ডিজপোজাল ইউনিট ও সোয়াট টিম গিয়ে সেটি পরীক্ষা করে। কিন্তু মর্টার শেলটি এত উচ্চক্ষমতার সক্রিয় বিস্ফোরক যে, সেটি তাদের পক্ষে নিষ্ক্রিয় করা সম্ভব ছিল না। সেজন্য আমরা সেনাবাহিনীকে চিঠি দিই।

তিনি বলেন নিউজনাউকে, আজ (সোমবার) সেনাবাহিনীর একজন ক্যাপ্টেনের নেতৃত্বে টিম এসে সেটির বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিষ্ক্রিয় করেছে। মর্টার শেলটি মুক্তিযুদ্ধের সময়কার পরিত্যক্ত বলে তিনি ধারণা করছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা শহিদুল ইসলাম হৃদয় নিউজনাউ বলেন, আলাউদ্দিন নামে একজন জেলের জালে মর্টার শেলটি আটকা পড়েছিল। উনি সেটাকে লোহার কোনো সিলিন্ডার ভেবে ভাঙারি দোকানে নিয়ে গিয়েছিলেন। ইছানগর বালুর মাঠে সেটির বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। সেখানে গ্রামের শত, শত মানুষ জড়ো হয়েছিলেন। বিস্ফোরণের সময় বিকট শব্দ হয়েছে।’

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: