চীন-পাকিস্তানের সম্মিলিত আক্রমণের শঙ্কায় ভারত!

নিউজনাউ ডেস্ক: ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে খোলাখুলিভাবে কথা বললেন দেশটির সেনাপ্রধান এমএম নারাভানে। দেশটির সেনা দিবসের আগে বার্ষিক সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। তিনি বলেন, পাকিস্তান-চীন জোট ভারতের জন্য কড়া চ্যালেঞ্জ। তারা যে একসঙ্গে যে কোনো পরিকল্পনা গ্রহণ করতে পারে বলেও আশঙ্কার কথা উচ্চারণ করেন তিনি।

নারাভানে বলেন, পূর্ব লাদাখে যতোদিন প্রয়োজন, মাটি আঁকড়ে পড়ে থাকবে ভারতীয় সেনাবাহিনী। যদি চীনের সঙ্গে আলোচনায় দ্রুত ফল না মেলে, তাহলে ভারতীয় সেনা ওই প্রতিকূল পরিস্থিতিতে অনেকদিন থাকতে প্রস্তুত।’

তবে, চীন যে দশ হাজার সেনা কমিয়েছে, সেটাকে বিশেষ আমল দিতে রাজি নন নারাভানে। তিনি জানান, পূর্ব লাদাখের পাশাপাশি চীনের সঙ্গে ভারতের সীমান্ত জুড়েই সেনারা এখন খুব সতর্ক। চীন রাস্তা ও ব্যারাক বানাচ্ছে বিভিন্ন রাজ্যের সীমান্তে। সে অনুযায়ী ভারতও নিজের রণকৌশল বদলাচ্ছে।

গত বছরের এপ্রিলে চীন প্রথমে আগ্রাসী মনোভাব দেখিয়ে ভারতকে চমকে দেয়। যদিও আগস্ট মাসে ভারত সেটা সুদে আসলে পুষিয়ে নিয়েছে। আগস্টে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ চূড়ো প্যাংগং লেকের ধারে দখল করে ভারত।

নারাভানে খোলাখুলিভাবে জানান, একসাথে কাজ করছে পাকিস্তান ও চীন। শুধু সামরিক নয় অন্য ধারাতেও তারা একসঙ্গে কাজ করছে। এর ফলে দুই দিক থেকেই আক্রমণ আসতে পারে, সে সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। সেরকম কোনো পরিস্থিতি হলে যেদিক থেকে বেশি বিপদ, সেটাকে আগে মোকাবিলা করা হবে।

তিনি আরও জানান, পরিকল্পনার সময় চীন ও পাকিস্তানের সম্ভাব্য একসঙ্গে আক্রমণ করার বিষয়টিতেও বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়।

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
এছাড়া, আরও পড়ুনঃ
মন্তব্য
Loading...
%d bloggers like this: