মাদ্রিদে কর্মহীন প্রবাসীদের জন্য মাসব্যাপী ত্রাণ  কার্যক্রম

কবির আল মাহমুদ, স্পেন থেকে: স্পেনে করোনা করোনাভাইরাসের কারণে নাজুক অবস্থায় পড়া বৈধ কাগজপত্রহীন প্রবাসীদের মাঝে মাসব্যাপী খাবার বিতরণ শুরু করেছে  বাংলাদেশি মানবাধিকার সংগঠন ভালিয়েন্তে বাংলা।

শনিবার ( ৪ জুলাই) ২৫০ অভিবাসী প্রবাসীদের জন্য বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় এবং মাদ্রিদে ভালিয়েন্তে বাংলার সার্বিক তত্ত্বাবধানে তাদের সদস্য ও উপদেষ্টাদের মুখ্য সহায়তায় মানবাধিকার সংগঠন ‘ভালিয়েন্তে বাংলা’ অভিবাসী বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের জন্য ষষ্ঠ দফায় ‘ফ্যামিলি ফুড প্যাকেট ‘ বিতরণ শুরু করেছে ।

স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদের বাঙালি–অধ্যুষিত ভালিয়েন্তে বাংলার কার্যালয়ের সামনে প্রায় আড়াই শতাধিক প্রবাসীদের জন্য এ কর্মসূচি চালানো হয় বলে জানায় সংগঠনটির নেতৃবৃন্দরা।

যারা সাময়িকভাবে আয়রোজগার থেকে বঞ্চিত, বিশেষ করে কাগজপত্রবিহীন অবৈধভাবে স্পেনে আছেন এবং বর্তমান পরিস্থিতিতে সংকটাপন্ন অবস্থায় রয়েছেন, তাঁদের সহযোগিতায় মানবাধিকার সংগঠন ভালিয়েন্তে বাংলা করোনার এই সংকট শুরু হওয়ার পর থেকেই এ প্রকল্পের কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

তাছাড়া যেকোনো দুর্দশাগ্রস্ত প্রবাসী বাংলাদেশির জন্যও প্রকল্পটি কাজ করে যাচ্ছে। এর অংশ হিসেবে এখানকার অনেক অসহায় ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে চাল, ডাল, মাছ, তেলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাবার সরবরাহের কার্যক্রম শুরু করেছে।

ভালিয়েন্তে বাংলার সভাপতি মোহাম্মদ ফজলে এলাহীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও সাধারণ সম্পাদক রমিজ উদ্দিনের পরিচালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন কমিউনিটি ব্যক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কমিউনিটি নেতা আবু বক্কর সিদ্দিক মামুন, অল ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবির আল মাহমুদ, ভালিয়েন্তে বাংলার সদস্যদের মধ্যে জুলহাস উদ্দিন, মোঃ হাবীব,আল-আমীন, মানিক মিয়া, মো. শাহ আলম, মকবুল হক, ফয়সাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ভালিয়েন্তে বাংলার সভাপতি মোহাম্মদ ফজলে এলাহী বলেন,“ভাইরাসে আক্রান্তদের নানাভাবে আমরা সহায়তা দিয়ে আসছি মধ্যমার্চ থেকেই।  এই কার্যক্রম চলবে পুরো জুলাই মাসব্যাপী।চলমান এই সংকট যতদিন থাকবে,ভালিয়েন্তে বাংলা পক্ষ থেকে এই কার্যক্রম চলমান রাখা হবে।”

ভালিয়েন্তে বাংলার সাধারণ সম্পাদক রমিজ উদ্দিন বলেন, “ভালিয়েন্তে বাংলার পুরো টিম কাজ করছি মহামারীতে বিপর্যস্ত প্রবাসীদের জন্য। সবার আন্তরিক সহায়তা পেলে চলমান ক্রান্তিকাল অবশ্যই আমরা কাটাতে পারবো।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ ৯৯ দিন লকডাউনের পর গত ২২ জুন পুরাপুরি উঠিয়ে নেয়া হলেও এখন পর্যন্ত অনেকেই কর্মহীন অবস্থায় রয়েছেন।

নিউজনাউ/টিএন/২০২০

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: