দিনাজপুরে পৃথক ঘটনায় দুই শিশুর মৃত্যু

নিউজনাউ ডেস্ক: দিনাজপুরে পৃথক ঘটনায় দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে। জেলার নবাবগঞ্জে স্বর্ণের দোকানে এসিডকে পানি ভেবে পান করে ৪ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। অপরদিকে বিরামপুরে বাড়ির পাশে খেলাধুলার সময় এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (০১ জুন) বেলা ১২ টার দিকে উপজেলা শহরের ‘সোমা জুয়েলার্স’ নামের স্বর্ণের দোকানে এই এসিডপানে শিশুর মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। শিশু মেফতাহুল জান্নাত উপজেলার বিনোদনগর নন্দনপুর গ্রামের শাহাজুল ইসলামের মেয়ে। আটক সোমাজুয়েলার্স’র মালিক মো.সাইফুল ইসলাম উপজেলার রামপুর এলাকার সবুজার রহমান এর ছেলে।

মৃতের স্বজনরা জানান ‘সকালে উপজেলা শহরের ‘সোমা জুয়েলার্স’ নামের একটি স্বর্ণের দোকানে ‘মা’ মোর্শেদা বেগম’র সঙ্গে গহনা তৈরী করতে যায় শিশু মেফতাহুল জান্নাত। সেখানে ক্ষুধা পেলে ওই শিশুটি মায়ের কাছে বিস্কুট খেয়ে পানি খেতে চান। এই সময়, ওই দোকানের কর্মচারী গ্লাসে করে পানির বদলে স্বর্ণ পরিস্কার করা এসিড খেতে দেয়। এসিড খেয়ে শিশুটি অজ্ঞান হয়ে পড়লে দ্রুত তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পর শিশুটি মারা যায়।

নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার(ভারপ্রাপ্ত) ডাঃ শাহাজাহান আলী নিউজনাউকে বলেন, অসুস্থ শিশুটিকে নিয়ে তার মা মোর্শেদা বেগম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসেছিলেন। মায়ের বর্ণনা অনুযায়ী সে পানির পরিবর্তে স্বর্ণের দোকানের এসিড পান করেছিলো।

এ ঘটনায় দোকানমালিক সাইফুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্তকর্মকর্তা (ওসি) অশোক কুমার চৌহান।

অপর এক ঘটনায় জানা গেছে, বাড়ির পাশে খেলা করার সময় নিজ পুকুরের পানিতে ডুবে মো.জিহাদ হোসেন (২) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার বিরামপুর উপজেলার কাটলা ইউনিয়নের দক্ষিণ দামোদপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। কাটলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো.নাজির হোসেন নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শিশু জিহাদ হোসেন ওই এলাকার মো.নুর ইসলাম (হিরু) এর ছেলে। স্থানীয়রা জিহাদকে পানি থেকে উদ্ধার করার আগেই তার মৃত্যু হয়। বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান মনির নিউজনাউকে বলেন, শিশুটির মৃত্যের খবর শুনেছি। পরিবারের কারো কোন অভিযোগ না থাকায় ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে তাকে দাফন করতে বলা হয়েছে।

নিউজনাউ/এসএ/২০২০

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: