বু‌ড়িগঙ্গায় লঞ্চডু‌বি: ১২ ঘণ্টা পর এক ব্যক্তি জীবিত উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবির দীর্ঘ ১২ ঘণ্টা পর, ডুবে যাওয়া লঞ্চের ভেতর থেকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে এক ব্যক্তিকে। সোমবার (২৯ জুন) রাত ১০টার দিকে ডুবুরিরা যখন টিউবের মাধ্যমে লঞ্চটি ওপরে তোলার চেষ্টা করছিলেন এবং লঞ্চটির একাংশ ওপরে উঠে আসছিল ঠিক তখনই ওই ব্যক্তি লঞ্চ থেকে বেরিয়ে আসেন।

উদ্ধার হওয়া ওই ব্যক্তির নাম সুমন ব্যাপারী। তিনি মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ী উপজেলার আব্দুল্লাহপুরের বাসিন্দা। তার বাবার নাম সজল ব্যাপারি।

সুমনকে উদ্ধারের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে ফায়ার সার্ভিসের ডেপুটি ডিরেক্টর দেবাশিষ বর্ধন জানান, উদ্ধার হওয়া ব্যক্তিটি ইঞ্জিন রুমে ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারণ ইঞ্জিন রুম এয়ারটাইট হওয়ায় সেখানে পানি প্রবেশ করে না। ১০টা ১০ মিনিটের দিকে কুশন পদ্ধতি ব্যবহার করে জাহাজ ভাসানোর চেষ্টা করা হলে সম্ভবত ইঞ্জিনরুম খুলে যায়। সে সময় তিনি বের হয়ে আসেন এবং উদ্ধারকর্মীরা তাকে উদ্ধার করেন।

সুমন বেপারিকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিকভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। ডুবুরিরা  তাকে লাইফ জ্যাকেটে ঢেকে এবং শরীর মেসেজ করে তার শরীর গরম করার চেষ্টা করেন। এরপর ওই ব্যক্তি চোখ মেলে তাকান। বর্তমানে তিনি পুরান ঢাকার মিটফোর্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি পেশায় একজন ফল ব্যবসায়ী এবং তার বাড়ি মুন্সিগঞ্জের আব্দুল্লাহপুর।

উল্লেখ্য, সোমবার সকালে সদরঘাটের শ্যামবাজার প‌য়ে‌ন্টে ময়ূর-২ নামের লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লেগে ডুবে যায় মর্নিং বার্ড লঞ্চ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ও কোস্ট গার্ড। তাদের সঙ্গে উদ্ধারকাজে যোগ দেন স্থানীয়রাও। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৮ জন নারী, ৩ জন শিশুসহ ৩২ জন যাত্রীর মর‌দেহ উদ্ধার করা হ‌য়।

নিউজনাউ/ এম এইচ/ ২০২০

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: