বান্দরবানে রেড জোন, লকডাউন মানছে না কেউ

বান্দরবান প্রতিনিধি: বান্দরবানে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে তিন শতাধিক। রেড জোনে লকডাউন থাকার কথা থাকলেও বান্দরবানে স্বাস্থ্যবিধি মানছেনা কেউ। এমনকি আক্রান্তরাও তোয়াক্কা করছে না করোনার। শনাক্ত এবং নমুনা নেয়া ব্যক্তিদের প্রাতিষ্ঠানিক বা হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত না করায় সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে সুস্থ মানুষের শরীরেও।

বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে মানবাধিকার কর্মী মো: কামরুজ্জামান নিউজনাউকে বলেন, নমুনা পরীক্ষায় ফলাফলে পজিটিভ শনাক্ত করোনা রোগী লামা পৌরসভার নয়া পাড়া বাসিন্দার রুবি বড়ুয়া, পৌরসভার কাউন্সিলর মো: হোসেন বাদশা দুজনকে রোববার লামা বাজারে চলাফেরা করতে দেখা গেছে। শনাক্ত রোগীর অনেক আত্মীয় স্বজনকেও ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে হাট-বাজারে। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করা না গেলে লকডাউন, রেড জোন ঘোষণার কোনো যৌক্তিকতা নেই।

এদিকে বান্দরবান পৌরসভার নয় নম্বর, এক নম্বর, আট নম্বর ওয়ার্ডেও পজিটিভ শনাক্ত কয়েকজনকে স্ব স্ব এলাকায় ঘুরে বেড়াতে দেখা গেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। প্রশ্ন উঠছে স্বাস্থ্য বিভাগ, প্রশাসন এবং জনপ্রতিনিধিদের হাল ছেড়ে দেয়া দায়িত্বহীন ভূমিকা নিয়েও।

স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, গোটা জেলায় করোনা আক্রান্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা তিন শতাধিক ছাড়িয়েছে। রোববার (২৮ জুন) পর্যন্ত শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৩১২ জন। তার মধ্যে সদরে ২১৩ জন এবং লামায় ৪৪ জন। নাইক্ষ্যংছড়ি ৩০ জন এবং আলীকদম ১৯ জন। জেলায় প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছিল নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমের তাবলীগ ফেরত আবু সিদ্দিক। চলতি মাসের ১৫ জুন পর্যন্ত দু’মাসে বান্দরবান জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছিল ৮২ জন। পরবর্তী ছয়দিনে সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৮২ জনে। পরের সপ্তাহে সংখ্যাটা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ে রোববার ২৮ জুন গিয়ে পৌছায় ৩১২ জনে।

বান্দরবানের সিভিল সার্জন ডা: অংসুই মারমা নিউজনাউকে বলেন, লকডাউনেও স্বাস্থ্যবিধি মানছেনা সাধারণ মানুষরা। শনাক্ত রোগী এবং নমুনা সংগ্রহ করা ব্যক্তিদের প্রাতিষ্ঠানিক বা হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করা কারো একার পক্ষে সম্ভব নয়। প্রশাসন, স্বাস্থ্যবিভাগ, জনপ্রতিনিধি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সবার সম্মলিত প্রচেষ্টা এবং অসুস্থ ব্যক্তিসহ পরিবারের সদস্যদেরও সচেতন হতে হবে। আন্তরিকতা ও সর্বাত্মক সেবার মানষিকতা থাকার পরও রোগীদের চাপে সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো: শামীম হোসেন নিউজনাুউকে বলেন, শনাক্ত রোগীরা এবং নমুনা দেয়া ব্যক্তিরা জনসম্মুখে ঘুরে বেড়ানোর ঘটনাটি দু:খজনক। মানুষ যদি সচেতন না হয় তাহলে প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে তাদের কতক্ষণ আটকে রাখা যাবে। অসুস্থ হওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

নিউজনাউ/এসএ/২০২০

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: