শহীদ জননী জাহানারা ইমামের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

নিউজনাউ ডেস্ক:

শহীদ জননী জাহানারা ইমাম, বাংলার ইতিহাসে অনন্য একটি নাম। সম্মুখে থেকে তিনি দেশকে আগলে রেখেছেন, নিজেকে উৎসর্গ করেছেন। এই মহিয়সী নারীর ২৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। দুরারোগ্য ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ১৯৯৪ সালের ২৬ জুন তিনি যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে মারা যান। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মানুষের কাছে জাহানারা ইমাম দেশপ্রেম, ত্যাগ ও সংগ্রামের এক অনন্য প্রেরণার উৎস হিসেবে আজও অবিস্মরণীয়।

শহীদ জননী জাহানারা ইমাম ১৯২৯ সালের ৩ মে মুর্শিদাবাদ জেলার সুন্দরপুরে জন্মগ্রহণ করেন। তার ডাক নাম জুড়ূ। জাহানারা ইমামের বাবা সৈয়দ আবদুল আলী ছিলেন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট। মা সৈয়দা হামিদা বেগম।

মুক্তিযুদ্ধে তার ছেলে রুমী শহীদ হন, স্বামী শরিফ ইমামও মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে অসুস্থ হয়ে বিনা চিকিৎসায় মারা যান। বিজয় লাভের পর রুমীর বন্ধুরা জাহানারা ইমামকে সব মুক্তিযোদ্ধার মা হিসেবে বরণ করে নেন। এক সন্তান হারিয়ে সারাদেশের সব মুক্তিযোদ্ধার জননী হয়ে উঠেছিলেন তিনি। বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের মুখোমুখি করার ক্ষেত্রে জাহানারা ইমামের অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে। জাহানারা ইমামের লেখা ‘একাত্তরের দিনগুলি’ বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম দলিল।

দেশের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আজ শহীদ জননীকে স্মরণ করবেন। তার নেতৃত্বে গড়ে ওঠা সংগঠন ‘একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি’ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আজ বিকেল ৩টায় করোনা পরিস্থিতিতে ভার্চুয়াল মাধ্যমে আলোচনা সভা, জাহানারা ইমাম স্মারক বক্তৃতা ও পদক প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। এছাড়া সকাল ৮টায় তার কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। পাশাপাশি সন্ধ্যা ৬টায় ভার্চুয়াল মাধ্যমে স্মৃতিচারণমূলক আলোচনা সভা আয়োজন করেছে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর।

নিউজনাউ/এসএইচ/২০২০

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: