মানিকগঞ্জে আর্থিক সংকটে বন্ধের পথে নবজাগরণ সমাজকল্যাণ সংঘ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি: মানিকগঞ্জের সদর উপজেলার ভাড়ারিয়া ইউনিয়নে একদল উদ্যোমী তরুনদের উদ্যোগে গড়া মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত সংগঠন নবজাগরণ সমাজ কল্যাণ সংঘ আর্থিক সংকটের মুখে পড়ে প্রায় বন্ধের পথে।

সমাজের অসহায় দরিদ্র সকল পেশার মানুষের পাশে থাকার শপথ নিয়ে ২০১৮ ইং সালের শুরুর দিকে উপজেলার ভাড়ারিয়া বাজারে একটি রুম ভাড়া নিয়ে কার্যক্রম শুরু সংগঠনটির। ৯১ সদস্য বিশিষ্ট এ সংগঠনের বেশিরভাগ সদস্যই তরুন কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী।

সদস্য প্রতি মাসিক একশত টাকা হারে চাঁদা আদায়ের মাধ্যমে পরিচালিত হতো সংগঠনের কার্যক্রম। কিন্তু করোনার প্রভাবে দীর্ঘ সাধারণ ছুটি থাকায় বেশিরভাগ সদস্যেরই আয়রোজগার একেবারে বন্ধ হয়ে গেছে। যে কারণে সদস্যরা চাঁদা দিতে পারছে না। আর্থিক সংকটের মুখে পড়ে রুম ভাড়া দিতে না পারায় ইতোমধ্যে সংগঠনের অফিস কক্ষটি ছেড়ে দিতে হয়েছে। অথচ মাস দেড়েক আগেও করোনার প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্থ ৮৩ টি পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছিলো সংগঠনটি।

এছাড়াও দরিদ্র রিক্সা চালকদের মাঝে মাস্ক, ৫০টি মসজিদে সাবান, সাবানের কেস, হ্যান্ড ওয়াশ ও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামুলক লিফলেট বিতরণ করেছিলো সংগঠনটি।

নবজাগরণ সংঘের সভাপতি মোঃ জয়নুল আবেদিন নীরব নিউজনাউকে বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে সবকিছু ঠিকঠাক চলছিলো। যে লক্ষ্য নিয়ে সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিলো সে লক্ষ্য পুরণে অনেকটাই সফল হয়েছি। কিন্তু হঠাৎ করোনা মহামারি সবকিছু উলটপালট করে দিলো। আমাদের সদস্য বেশিরভাগ বয়সে তরুণ, কলেজ শিক্ষার্থী আর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। করোনার প্রভাবে দীর্ঘদিন সকলের আয়রোজগার একেবারেই বন্ধ। সদস্যদের মাসিক চাঁদা আদায়ের মাধ্যমে সংগঠনের সকল কার্যক্রম পরিচালনা করা হতো। আয়রোজগার বন্ধ হয়ে যাওয়ায় কেউ চাঁদা দিতে পারছে না। আর্থিক সংকটের কারণে অনেকটা বাধ্য হয়েই অফিস কক্ষ ছেড়ে দিতে হয়েছে। এভাবে দীর্ঘদিন করোনা মহামারি চলতে থাকলে হয়তো আমাদের সংগঠনের কার্য্যক্রম এক সময় সম্পুর্ণ বন্ধ হয়ে যাবে। তবে এ মুহুর্তে বিত্তবানরা এগিয়ে আসলে, সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের সহায়তা পেলে আবার মানবকল্যাণে কাজ করতে পারবে সংগঠনটি।

ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল মজিদ নিউজনাউকে বলেন, সংগঠনটি দেশের দুর্যোগকালীন মুহুর্তে ও বিপদে আপদে সমাজের অবহেলিত দরিদ্র মানুষের সহায়তায় হাত বাড়িয়ে দেয়। সমাজের অবহেলিত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ভাগ্য উন্নয়নে এ সংগঠনটি টিকিয়ে রাখা প্রয়োজন। সমাজের বিত্তবান সকল মানুষ ও সরকারের সহায়তার পেলে সংগঠনটি টিকে থাকবে বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

আর্থিক সংকটে পড়া মানবতার ফেরিওয়ালা খ্যাত সংগঠন নবজাগরণ সংঘের অস্থিত্ব টিকিয়ে রাখতে হাত বাড়িয়ে দেবেন সমাজের বিত্তবান ও সরকারের সংশ্লিষ্ট মহল এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয়দের ।

নিউজনাউ/এসএ/২০২০

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: