১১টি উবার ও ২টি পাঠাওসহ রাইড শেয়ারিংয়ে চলবে ২৫৫ যান

নিউজনাউ ডেস্ক:

করোনা সংক্রমণ ঝুঁকিতে অ্যাপের মাধ্যমে রাইড শেয়ারিং সেবাগুলো বন্ধ হলেও আবার চালুর অনুমতি দিয়েছে সরকার। তবে মাত্র ২৫৫টি গাড়ির। সীমিত সংখ্যায় গাড়ি নামানোর অনুমতির পেছনে শুধু স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ই জড়িত নয়, দীর্ঘদিন ধরে রাইড শেয়ারিং সেবার নীতিমালা না মানার কারণেই পুরোপুরি এই সেবা চালু করতে পারছে না তারা।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) রাইড শেয়ারিং হিসেবে চালানোর চূড়ান্ত লাইসেন্স আছে, এমন ২৫৫টি গাড়িই চলাচলের অনুমতি দিয়েছে। এই সিদ্ধান্ত মেনে সেবা দিতে গেলে উবার মাত্র ১১টি গাড়ি চালাতে পারবে। পাঠাও পারবে মাত্র দুটি গাড়ি চালাতে। অন্য কোম্পানিগুলোর ২ থেকে ২০টির বেশি গাড়ি নেই।

করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মানার কড়াকড়ি রয়েছে। এর সঙ্গে সেবাদাতা কোম্পানিগুলোকে নীতিমালা মানার ব্যাপারে কঠোর অবস্থান প্রকাশ করেছে বিআরটিএ।

ঢাকাসহ সারাদেশে কত গাড়ি ও মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং সেবায় নিয়োজিত সেই হিসাব নেই বিআরটিএর। একটি যানবাহন মালিক একাধিক কোম্পানির অ্যাপে যুক্ত। তবে রাইড শেয়ারিংয়ে দুইলাখের বেশি গাড়ি ও মোটরসাইকেল যুক্ত বলে মনে করে বিআরটিএ কর্মকর্তারা।

উবার, পাঠাও ছাড়া আরও নয়টি কোম্পানির কমপক্ষে ১০০ যানবাহন চালানোর অনুমতি আছে। এসব কোম্পানি মাত্র ১ হাজার ২২৩টি যানবাহনের চূড়ান্ত লাইসেন্স নিয়েছে। এর মধ্যে গাড়ি মাত্র ২৫৫টি। বাকিগুলো মোটরসাইকেল।

বিআরটিএ রোববারের নির্দেশে মোটরসাইকেল চালানোর অনুমতি দেয়নি। এর পরিপ্রেক্ষিতে সহজ ডটকম ও পাঠাও যৌথভাবে আজ সোমবার বিআরটিএকে চিঠি দিয়েছে। তারা মোটরসাইকেল চালানোর অনুমতি চেয়েছে। পাশাপাশি অনলাইনের মাধ্যমে লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি আরও সহজ করার দাবি জানিয়েছে।

বিআরটিএ সূত্র বলছে, কেউ সিদ্ধান্ত অমান্য করে লাইসেন্সবিহীন গাড়ি চালালে তাদের ধরার কোনো পথ নেই। তবে রাস্তায় নেমে বিআরটিএ ম্যাজিস্ট্রেটরা পরীক্ষা করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পারবে।

রাইড শেয়ারিং কোম্পানির নীতিমালা অনুসারে, প্রথমে রাইড শেয়ারিং কোম্পানিকে বিআরটিএর থেকে লাইসেন্স নিয়ে তালিকাভুক্ত হতে হবে। এরপর প্রতিটি যানবাহনের জন্য আলাদা লাইসেন্স নিতে হবে। এক্ষেত্রে প্রত্যেক কোম্পানির অন্তত ১০০টি লাইসেন্স করা যানবাহনের একটি ফ্লিট থাকতে হবে।

রাইড শেয়ারিং সেবা চালু আছে প্রায় সব কোম্পানিই তাদের লাইসেন্স নিয়েছে। কিন্তু তাদের অধীনে চলাচলকারী সব যানবাহনের লাইসেন্স নেয়নি। এজন্যই হয়ত জটিলতা হচ্ছে।

সরকার সীমিত আকারে গণপরিবহন চালুর ঘোষণা দেওয়ার পর উবার ও পাঠাও গত ১ জুন স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের সেবা চালুর বিষয়ে বিআরটিএতে চিঠি দেয়। জবাবে বিআরটিএ রাইড শেয়ারিংয়ে ব্যবহৃত সব যানের লাইসেন্স এবং স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়টি নিশ্চিত করার তাগিদ দেয়। কোম্পানিগুলোর সঙ্গে আনুষ্ঠানিক–অনানুষ্ঠানিক আলোচনার পর গত রোববার শুধু লাইসেন্স করা যান চলাচলের অনুমতি দিয়েছে বিআরটিএ।

এ সংক্রান্ত আদেশে বিআরটিএ বলেছে, ‘কোভিড-১৯ জনিত উদ্ভূত পরিস্থিতিকালীন রাইড শেয়ারিং সার্ভিস পরিচালনায় বিআরটিএ থেকে রাইড শেয়ারিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের অ্যাপস ব্যবহার করে শুধুমাত্র রাইড শেয়ারিং মোটরযান এনলিস্টমেন্ট সার্টিফিকেটপ্রাপ্ত মোটরকার, জিপ, মাইক্রোবাস ও অ্যাম্বুলেন্স (মোটরসাইকেল ব্যতীত) স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ২১ জুন থেকে ঢাকা মেট্রো, গাজীপুর মেট্রো, ঢাকা জেলা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, নরসিংদী ও গাজীপুর জেলা এলাকায় চলাচলের জন্য অনুমতি প্রদান করা হল।’

বিআরটিএ সূত্র বলছে, সারাদেশে কত যানবাহন রাইড শেয়ারিং এ চলছে এর প্রকৃত হিসেব তাদের কাছে নেই। একই গাড়ি একাধিক কোম্পানির অ্যাপসে নিবন্ধন করা আছে। তবে সংখ্যাটা দেড়লাখের মতো।

বিআরটিএ থেকে এখন পর্যন্ত ১২টি কোম্পানি রাইড শেয়ারিং সেবা পরিচালনা করার অনুমোদন পেয়েছে। গত ১৬ মে পর্যন্ত ১১টি কোম্পানি সর্বনিম্ন ১০০ মোটরযানের ফ্লিটের নিবন্ধন নিয়েছে। সবমিলিয়ে নিবন্ধিত যানবাহনের সংখ্যা ১ হাজার ২২৩টি। সরকার স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করার জন্য গাড়িগুলো চলাচলের অনুমতি দিয়েছে। মোটরসাইকেল বন্ধ রাখা হবে।

বিআরটিএর তথ্যমতে, ১৬ মে পর্যন্ত সর্বাধিক উবার নিবন্ধন নিয়েছে ১২৬টি যানবাহনের। এর মধ্যে গাড়ি ১৫টি, ১১১টি মোটরসাইকেল। পাঠাও লিমিটেড অনুমতি নিয়েছে ১১৮টি যানবাহনের। এর মধ্যে মাত্র দুটি গাড়ি। বাকিগুলো মোটরসাইকেল। অর্থাৎ এই দুটি কোম্পানি এখন মাত্র ১৭টি গাড়ি অনুমতি পেয়েছে। অথচ তাদের অ্যাপে কয়েক হাজার করে গাড়ি নিবন্ধন করে আছে। লকডাউনের আগে সেগুলো চলেছেও। সহজ লিমিটেড চূড়ান্ত অনুমোদন নিয়েছে ১০২টি যানের।

বিআরটিএ সূত্রমতে, তারা শুধু নিবন্ধিত যে গাড়িগুলো রাইড শেয়ারিং এর অধীনে চালাতে বলেছে, সেগুলোর প্রতিটির নিবন্ধন নম্বর বিআরটিএতে রক্ষিত আছে।

নিউজনাউ/এসএইচ/২০২০

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: