NewsNow24.Com
Leading Multimedia News Portal in Bangladesh

বঙ্গবন্ধু বিপিএল’র রাজা রাজশাহী

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

নিজস্ব প্রতিবেদক: খুলনা টাইগার্স ও রাজশাহী রয়্যাল ফাইনালে ওঠার পরই বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছিল এবার নতুন চ্যাম্পিয়ন পাবে বিপিএল। ফাইনালের দুই দল- খুলনা টাইগার্স আর রাজশাহী রয়্যালসের মধ্যে কোনোটিই এর আগে শিরোপার স্বাদ পায়নি। তবে শেষ পর্যন্ত দুই দলের মধ্যে কারা শেষ হাসি হাসে, সেটার জন্যই ছিল সব রকম অপেক্ষা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এবারের বিশেষ বিপিএলে দেখাও মিললো নুতন চ্যাম্পিয়নের। শুক্রবার (১৭জানুয়ারি) ফাইনালে খুলনা টাইগার্সের সাথে লড়াই করে ২১ রানে জিতে নতুন রাজা বনে গেল রাজশাহী রয়্যালস। প্রথমবারের মতো শিরোপার জেতার স্বাদ পেল পদ্মাপাড়ের শহরটি।

রাজশাহী রয়্যালস ১৭০ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ তুলেছিল। রান তাড়ায় শুরুতেই হেরে বসেনি খুলনা টাইগার্স। দুই ওপেনার নাজমুল শান্ত ও মেহেদি মিরাজকে হারিয়ে বিপদে পড়লেও গুছিয়ে উঠেছিল দলটি। শামসুর রহমান (৫২) এবং রাইলি রুশো (৩৭) দলকে বেশ এগিয়েও নিয়েছিলেন। শেষ রাঙিয়ে ফেরার চ্যালেঞ্জ নিতে মুশফিকুর রহিম ব্যাটে নামেন পাঁচে।

বিপিএলের প্রথম শিরোপায় চোখ ছিল তার। কিন্তু ১৮তম ওভারে আশা ভাঙে খুলনার। দেশ সেরা টি-২০ ব্যাটসম্যান মুশফিক ২১ রানে ফিরতেই সব স্বপ্ন ঝুরঝুর করে ভেঙে যায় তাদের। শেষ দিকে ব্যাট করতে নামা রবি ফ্রাইলিংক-শফিউল ইসলামরা চ্যালেঞ্জ নিতে পারেননি মোহাম্মদ ইরফান-আন্দ্রে রাসেলদের। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৪৯ রান তুলে থামে খুলনা। দুইবার ফাইনালে উঠে প্রথমবার শিরোপা জয়ের কীর্তি গড়ে রাজশাহী। আর খুলনার প্রথম ফাইনালে ওঠাটা শেষ হয় ব্যর্থতায়।

ম্যাচটা পক্ষে না আসলেও টসটা পক্ষে পেয়েছিলেন খুলনার অধিনায়ক মুশফিক। শিশির ভেজা উইকেটে রান তাড়া করতে সুবিধা হবে জেনে শুরুতে ফিল্ডিং নিয়েছিলেন। রাজশাহীর রান নিয়ন্ত্রণে রাখার কাজটাও করে যাচ্ছিল তারা দলের বোলাররা। কিন্তু শেষ দিকে আন্দ্রে রাসেল ১৬ বেল ২৭ ও মোহাম্মদ নওয়াজ ২০ বলে ৪১ রান করে খুলনার সামনে বড় রান দাঁড়া করায়। তার আগে রাজশাহীর হয়ে ইরফান শক্কুর ৩৫ বলে ৫২ রান করেন। লিটন দাস খেলেন ২৫ রানের ইনিংস।

জবাবে নামা খুলনা শুরুর ১১ রানে দুই উইকেট হারায়। এরপর রাইলি রুশো এবং শামসুর রহমান ৭৪ রানের জুটি গড়েন। ম্যাচটা নিয়ন্ত্রণে রাখেন। কিন্তু একশ’ ছাড়াতেই রুশো-শামসুরের সঙ্গে নাজিবুল্লাহ জাদরানকে হারিয়ে পথ হারায় খুলনা। মুশফিক ছিলেন দলের একমাত্র ভরসা। কিন্তু খুলনা অধিনায়ক মুশফিককে বোল্ড করে দলকে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথ পরিষ্কার করে দেন রাজধানীর অধিনায়ক রাসেল। রাজশাহীর হয়ে দারুণ বোলিং করেন মোহাম্মদ হরফান ও কামরুল রাব্বি। দু’জনে ৪ ওভারে যথাক্রমে ১৮ ও ২৯ রান দিয়ে নেন দুই উইকেট। রাসেলও থলেতে ভরেন দুই উইকেট।

ম্যাচ ও টুর্নামেন্টসেরার পুরস্কারটি হাতে নিয়ে রাজশাহী রয়্যালসের অধিনায়ক রাসেলই শেষ পর্যন্ত চওড়া হাসিটা হেসেছেন।

নিউজনাউ/২০২০

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আপনার মতামত জানান

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More