NewsNow24.Com
Leading Multimedia News Portal in Bangladesh

কুষ্টিয়ায় ধানের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না কৃষকরা

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

এ.এইচ.এম.আরিফ, কুষ্টিয়া থেকেঃ সিন্ডিকেট ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবহেলাসহ নানা অনিয়মে চলতি আমন মৌসুমে ধান উৎপাদনের অন্যতম জেলা কুষ্টিয়ার কৃষক ধানের ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন বলে অভিযোগ কৃষকের।

জেলার কৃষি বিভাগের তথ্য মতে, এ মৌসুমে ৮৮ হাজার সাড়ে ৬শ হেক্টর জমিতে হেক্টর প্রতি ৫.২ মেট্রিক টন হিসেবে আমন চাষে উৎপাদন হয়েছে ৪ লাখ, ৪৪ হাজার মেট্রিক টন।

সরকারীভাবে জেলার ৬টি উপজেলায় ন্যায্য মূল্যে (১০৪০টাকা দরে) ধান কেনা হচ্ছে মাত্র ১১ হাজার মেট্রিক টন। ধান ক্রয়-বিক্রয়ে সংশ্লিষ্টদের হিসেব মতে, কৃষকের কাছে বিক্রয়যোগ্য ধান রয়েছে প্রায় ৩লক্ষ মেট্রিক টন। সরকারী ভাবে ক্রয়কেন্দ্রেও নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।

ধান ক্রয়ে লক্ষমাত্রা বরাদ্দে সম্প্রসারণসহ এবিষয়ে সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রনয়ন ও বাস্তবয়ন হলেই কেবল কৃষকের কাঙ্খিত ন্যায্য মুল্য নিশ্চিত হওয়া সম্ভব বলে জানালেন কৃষি সম্প্রসারন বিভাগ, ধানক্রেতা মিলার ও জেলা প্রশাসন।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আইলচারা গ্রামের কৃষক মুন্নাফ মন্ডলের অভিযোগ, সার, বীজ, কীটনাশক, সেচ ও শ্রমিকসহ ধান উৎপাদনে আনুষঙ্গিক খরচ যোগান দিতে প্রতি বছরই আমাদের ঘাড়ে চাপছে লোকসানের বোঝা।

তিনি বলেন, প্রতি একমন ধান উৎপাদনে ন্যুনতম খরচ হয় প্রায় সাড়ে ৮শ টাকা; কিন্তু বাজারে ধান ক্রেতা সিন্ডিকেটের বেধে দেয়া সাড়ে ৫শ থেকে সাড়ে ৬শ টাকা মন ধান বিক্রী করতে বাধ্য হচ্ছি।

দৌলতপুর উপজেলার আড়িয়া গ্রামের কৃষক আব্দুল গফুর বলেন, একদিকে সরকার নির্ধারিত ন্যায্য মূল্যে (১০৪০টাকা দরে) প্রতিমন ধান কেনার প্রচারনা চালিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কার্যত: কৃষকের সাথে তামাশা করছেন।

অন্যদিকে স্থানীয় প্রভাবশালী চক্রের কাছে সরকারী ধান ক্রয় কার্যক্রম জিম্মি হয়ে আছে। তারা কৃষক নয় এমন লোকদের নামে বরাদ্দ দেখিয়ে সরকারী গুদামে ধান বিক্রয় করছে এমন অভিযোগ তুলে বিদ্যমান এই অনিয়মের অবসান দাবি করেন।

বাংলাদেশ মেজর হাস্কিং ও অটো র্ইাচ মিল মালিক সমিতি, কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন সাধু বলেন, ফসলের ন্যায্যমূল্য না পাওয়া কৃষকের এই দুর্দশা দীর্ঘদিনের। ধানের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে হলে সুনির্দিষ্ট ও কঠোর নীতিমালা প্রনয়নসহ তা বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্টদের সতর্কতার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, কুষ্টিয়ার উপ-পরিচালক শ্যামল কুমার বিশ্বাস বলেন, আমন মৌসুমে সরকার নির্ধারিত ন্যায্যমূল্যে ধানক্রয় কার্যক্রমকে আগামীতে আরও সম্প্রসারিত করার চিন্তা করছে সরকার।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আপনার মতামত জানান

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More