NewsNow24.Com
Leading Multimedia News Portal in Bangladesh

প্রেমে প্রতারিত: ক্ষমা করবেন, নাকি যেতে দেবেন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

নিউজনাউ ডেস্ক: প্রেমের পর জীবন আমূল বদলে যায়। কেউ প্রেমে প্রতারিত হলে তাকে অনেক কষ্ট, আঘাত এবং বিশ্বাসঘাতকতার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। এরপর সে সঙ্গীকে আর বিশ্বাস করতে পারে না। যে প্রতারণা করে সে নিজের মধ্যে অপরাধবোধ অনুভব করে, পরিস্থিতি যাই হোক না কেন। ইটাইমস লাইফস্টাইলের এক জরিপে দেখা গেছে যে ৩১% মানুষ প্রতারক সঙ্গীকে ক্ষমা করতে চায়। এর সম্ভাব্য কারণগুলো চলুন জেনে নেওয়া যাক-

সেকেন্ড চান্স

অনেকে সেকেন্ড চান্স দিতে বিশ্বাসী। এমনকি যদি সঙ্গী তাদের সঙ্গে প্রতারণা করে, তবে তারা প্রতারক ভেবে ছেড়ে দেওয়ার আগে অন্তত আরেকবার সুযোগ দিতে চায়। তারা বিশ্বাস করে, যদি আরেকটি সুযোগ দেওয়া হয়, তাদের সঙ্গী ভুল সংশোধন করতে পারে এবং আগের চেয়ে অনেক ভালো মানুষ হতে পারে।

পরিবার

অনেকে এই ভুলের জন্য তাদের সঙ্গীকে ক্ষমা করতে চায়, কারণ তাদের একটি পরিবার এবং সন্তান রয়েছে। যারা প্রতারিত হয়, তারা তাদের জীবনের সবচেয়ে কঠিন সিদ্ধান্ত নেয় তাদের সঙ্গীর সঙ্গে থাকার জন্য। সঙ্গীর চরম ভুলের পরে তারা একসঙ্গে থাকতে চায়, শুধুমাত্র তাদের সন্তানদেরকে যেন তালাকপ্রাপ্ত পরিবারে বড় হতে না হয় বা বাবা-মায়ের আলাদা জীবনযাপনের শিকার হতে না হয়।

পেশাদারের সাহায্য

অনেক লোক অবচেতনভাবে তাদের প্রতারক সঙ্গীকে ক্ষমা করতে চায়, কিন্তু তাদের মধ্যে এক ধরনের দ্বন্দ্বপূর্ণ অনুভূতি তা করা থেকে বিরত করে। এই সময়ে, পেশাদার ম্যারিজ কাউন্সেলর বা থেরাপিস্ট কার্যকর সমাধান প্রদান করে।

প্রতিশোধ

জরিপ অনুসারে, প্রায় ৩০% লোক তাদের সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণার জন্য তাদের কাছে ফিরে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত ছিল। এটি আরেকটি কারণ হতে পারে যে অনেক লোক তাদের সঙ্গীকে দ্বিতীয় সুযোগ দিতে চায় যাতে তারা তাদের সঙ্গীর মতো একইভাবে আঘাত করতে পারে। প্রতিশোধের এই নেতিবাচক আবেগটি কেবল আঘাত এবং বেদনাই ডেকে আনে।

ক্ষমা সবার জন্য নয়

অন্য ৬৯% লোক তাদের সঙ্গীকে ক্ষমা করার বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে, তারা এমন একটি অংশের প্রতিনিধিত্ব করে যারা তাদের সঙ্গীকে আঘাত করার জন্য ক্ষমা করতে পারে না। তাদের মতে, প্রতারণা করা শুধু ভুল নয়; এটি সম্পর্ককে নষ্ট করে দেয় এবং পুনরায় বিশ্বাস গড়ে উঠতে দেয় না।

নিউজনাউ/এবি/২০২২

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আপনার মতামত জানান

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More