নির্বাচনী ব্যয়ঃ ৬ থেকে ৫০ লাখ

মাহমুদুল হাসান: আসন্ন ঢাকা উত্তর (ডিএনসিসি) ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে প্রার্থীর নির্বাচনী ব্যয় ঠিক করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীদের কার কত টাকা জামানত দিতে হবে তাও ঠিক করে দিয়েছে ইসি। নির্বাচনী এলাকায় ভোটারের সংখ্যা অনুযায়ী ব্যয় ও জামানত নির্ধারিত হয়েছে। সম্প্রতি কমিশন এ সংক্রান্ত এক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

দুই সিটিতে মেয়র পদে প্রার্থীদের জন্য ১ লাখ টাকা জামানত, ২ লাখ টাকা ব্যক্তিগত ব্যয় এবং সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা নির্বাচনী ব্যয় ঠিক করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে প্রার্থীদের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে যত ভোটার থাকুক না কেন, জামানত ১০ হাজার টাকা, নির্বাচনী ব্যয় ৬ লাখ টাকা এবং ব্যক্তিগত ব্যয় ৫০ হাজার পর্যন্ত ঠিক করেছে কমিশন।

ভোটার অনুযায়ী ৪ ক্যাটাগরিতে জামানত ঠিক করেছে ইসি। যেসব ওয়ার্ডে ২০ হাজারের কম ভোটার, সেখানকার কাউন্সিলর প্রার্থীর জামানত ১০ হাজার টাকা, নির্বাচনী ব্যয় সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা ও ব্যক্তিগত ব্যয় ১০ হাজার টাকা ধরা হয়েছে।
আবার ২১ থেকে ৩০ হাজার ভোটার রয়েছে- এমন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীদের জন্য ২০ হাজার টাকা জামানত, নির্বাচনী ব্যয় ২ লাখ টাকা এবং ব্যক্তিগত খরচ ২০ হাজার টাকা ধরা হয়েছে।
অন্যদিকে ৩১ থেকে ৫০ হাজার পর্যন্ত ভোটার থাকলে ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী ৩০ হাজার টাকা জামানত দেবেন। সর্বোচ্চ ৪ লাখ টাকা নির্বাচনী ব্যয় ও ৩০ হাজার টাকা ব্যক্তিগত খরচ করতে পারবেন। আর এর চেয়ে বেশি ভোটার যেসব ওয়ার্ডে রয়েছেন, সেখানে কাউন্সিলর পদে ৫০ হাজার টাকা জামানত, ৬ লাখ টাকা নির্বাচনী ব্যয় এবং ৫০ হাজার টাকা ব্যক্তিগত ব্যয় ঠিক করেছে ইসি।

নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন ৩১ ডিসেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ২ জানুয়ারি এবং প্রত্যাহারের শেষদিন ৯ জানুয়ারি।

আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। দুই সিটি নির্বাচনে প্রতিটি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হবে।

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান