বিয়ের বাজার করার আগে যা খেয়াল রাখবেন

নিউজনাউ ডেস্ক: শীত আসলেই চারদিকে বিয়ের ধুম পড়ে যায়। আর এখন চলছে সে বিয়ের মৌসুম। চারদিকে বিয়ের সানাই। তবে বিয়ে করতে গেলে সবার আগেই মাথায় চিন্তা আসে বিয়ের শপিং কিভাবে করবো, কোন কিছু বাদ গেলো না তো

বিয়ের দিন ঠিক হওয়ার পরেই খুব তাড়াতাড়ি বিয়ের শপিংয়ের প্ল্যান করে ফেলতে হয়। কিন্তু বিয়ের শপিং করছি মানে তাড়াহুড়ো করে কিছু করা চলবে না। তাহলেই কিন্তু যেমন অনেক বেশি টাকাও খরচ হবে আর শপিংটাও ঠিক ঠাক হবে না। বিয়ের কেনাকাটা করার সময় যথেষ্ট ভেবেচিন্তে কিন্তু এগোতে হবে। তাই বিয়ের কেনাকাটা করার সময় কী করবেন আর কী করবেন না সেটা আগেই ঠিক করে নিন। বিয়ের শপিং টিপস রইলো আপনার জন্য।

প্রথমেই লিস্ট করে নিন
বিয়ের শপিং শুরু করার সময় প্রথমেই একটা লিস্ট বানিয়ে নেবেন। এই লিস্টে কী কী থাকবে? আপনি কী কী কিনতে চান, তার একটা সম্পূর্ণ লিস্ট থাকবে। অর্থাৎ, কটা শাড়ি কিনবেন কোন জুতো কিনবেন থেকে শুরু করে হেয়ার ক্লিপ সবই যেন আপনার সেই তালিকায় থাকে। এইটা আপনার মাস্টার লিস্ট হবে। এরপর শাড়ির একটা আলাদা লিস্ট, কসমেটিক্সের আলাদা লিস্ট করবেন। এছাড়াও প্রতিটা সামগ্রী অনুযায়ী আপনার (shopping tips for wedding) আলাদা আলাদা লিস্ট হবে।

কোন কোন দোকান থেকে শপিং করবেন তা ঠিক করুন
এখন অফিস ও বাড়ির কাজ করার পর সবার হাতেই সময় খুব কমে যায়। আপনিও সেই কথা জানেন। তাই একটা সম্পূর্ণ দিন দোকানে ঘুরে ঘুরে কাটিয়ে দিলেন, সেই কাজ করতে যাবেন না। কোন কোন দোকানে আপনি শাড়ি কিনতে যেতে পারেন, সেই সব দোকানের আগেই একটা লিস্ট করে নেবেন। আপনার পছন্দের দোকানের নাম থাকবে আপনার হাতের সামনেই। তখন পছন্দমতো দোকানে যেতে কোনও সমস্যা থাকবে না।

ব্র্যান্ডের থেকে পছন্দকে গুরুত্ব দেবেন
ভাল ব্র্যান্ডের জিনিস বলেই সেই জিনিস আপনার পছন্দ হবে, এই কথা ভাবাও ভুল। সবসময় খেয়াল রাখবেন আপনার পছন্দের দিকে। আপনার যদি কোনও ছোট দোকানের শাড়িই পছন্দ হয়, তবে সেই শাড়িই নেবেন। বা কম জনপ্রিয় কোনও ব্র্যান্ডের মেকআপ আপনার ত্বকে সুট করলে আপনি সেই মেকআপ প্রোডাক্টই কিনবেন। কখনও ব্র্যান্ডের ভিত্তিতে জিনিস পছন্দ করবেন না। এতে টাকাও বেশি খরচ হয় আর আপনার শপিংও (shopping tips for wedding)ঠিক ঠাক হয় না।

কোন দিন কোন শপিং করবেন
একদিনে বিয়ের কেনাকাটা সব করতে যাবেন না। এই কথা যদি ভেবে থাকেন, তবে খুব ভুল করছেন। বিয়ের কেনাকাটা প্রচুর। একদিনেই শাড়ি, কসমেটিক্স, দশকর্মার কেনাকাটা সব করবেন যদি ভেবে থাকেন, তবে আপনার শপিং মাটি হল। তার থেকে প্রতিটা শপিংয়ের জন্য এক একটি দিন বেছে নিন। সময় কম থাকলেও হবে, কিন্তু আলাদা আলাদা দিনে আলাদা আলাদ শপিং করলে আপনার শপিং করা অনেক সহজ হয়ে যাবে। কোনও অসুবিধাও হবে না। অর্থাৎ, একদিন নমস্কারির শাড়ি ও আপনার শাড়ি কিনলেন। ওইদিনই জুতো কিনে নিলেন। আবার অন্যদিন কসমেটিক্স কিনলেন। এইভাবে শপিং করুন।

প্রতিটা কেনাকাটার জন্য বাজেট ঠিক করুন
প্রতি কেনাকাটার জন্য একটা বাজেট ঠিক (shopping tips for wedding) করবেন। চেষ্টা করবেন সেই বাজেটের মধ্যেই কেনাকাটা সেরে ফেলার। মানে, শাড়ির জন্য একটা নির্দিষ্ট বাজেট রইল আবার অন্যান্য ড্রেসের জন্য একটা বাজেট রইল। সেই বাজেটের কথা মাথায় রেখেই কেনাকাটা সারবেন। এতে আপনার সুবিধা হবে। খরচও আয়ত্ত্বের মধ্যে থাকবে।

নিউজনাউ/এবি/২০২২

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান