নিজের যে ৭ বিষয় কাউকে বলবেন না

নিউজনাউ ডেস্ক: সবকিছু উচ্চস্বরে বলা এবং সবার সঙ্গে শেয়ার করা উচিত নয়। জীবনে এমন কিছু জিনিস থাকে যা আপনার চারপাশের পৃথিবী থেকে গোপন রাখতে হবে। মন খুলে কারও সঙ্গে গল্প আপনি করতেই পারেন, কিন্তু এই খোলা মনের অর্থ যেন নিজের সবকিছু গলগল করে বলে দেওয়া না হয়। অন্তত সাতটি বিষয় আপনাকে অন্যের কাছ থেকে গোপন রাখতেই হবে, যেগুলো আপনি অহরহ বলে থাকেন। এবার থেকে এগুলো গোপন রাখতে শিখুন আর জীবনের পরিবর্তনটা নিজেই টের পান

আপনার সঙ্গীর সমস্যা

আপনার সঙ্গীর এমন কোনো অভ্যাস থাকতে পারে যা আপনার জন্য সব সময় স্বস্তিদায়ক নাও হতে পারে। কিন্তু সেগুলো মানুষের সঙ্গে শেয়ার করবেন না। এটি আপনার এবং আপনার সঙ্গীর মধ্যে গোপন রাখবেন। তার গোপনীয়তা রক্ষা করাকে প্রাধান্য দেওয়া উচিত, শেয়ার করাকে নয়। এমনকি ব্রেকআপের পরেও, বেশিরভাগ মানুষের তাদের প্রাক্তন সম্পর্কে খারাপ কথা বলার প্রবণতা থাকে। এটি ঠিক নয়।

আপনার লক্ষ্য

আমাদের বেশিরভাগেরই জীবনে কিছু লক্ষ্য থাকে, কিছু জিনিস আমরা অর্জন করতে চাই। সেগুলো নির্ধারণ করা, সেগুলো নিয়ে কাজ করা এবং সেগুলো অর্জন না করা পর্যন্ত কারও সঙ্গে শেয়ার না করাই ভাল। কারণ যদি আপনি আরও আকর্ষণীয় কিছু খুঁজে পেয়ে আগে থেকে বলে রাখা লক্ষ্যগুলোতে কাজ করা বন্ধ করেন, তখন সবাই আপনাকে প্রশ্ন করা শুরু করবে। তখন জনে জনে নিজেকে ব্যাখ্যা করতে হবে বা কৈফিয়ত দিতে হবে। একবার আপনি যা চান তা শেয়ার করলে সবার কাছে ইতিবাচক কিছু বলার থাকে না। সেখানে নেতিবাচক মন্তব্য থাকবে, জটিল মানসিকতার মানুষের কাছ থেকে খারাপ ধারণা পেতে পারেন আবার ‘নজর লাগা’রও একটি বিষয় রয়েছে!

ভালো কাজ জানিয়ে দেওয়া

আপনি যদি কারো জন্য ভালো কিছু করে থাকেন তবে তা নিজের কাছেই রাখুন। বিশেষ করে যখন তা দাতব্য কাজ হয়। আপনি যা করেছেন তা নিয়ে গর্ব করলে তা মানুষের চোখ ঘুরিয়ে দেবে এবং এটি সত্যিই হয়ে থাকে। অন্যদের আপনার সম্পর্কে কথা বলতে দিন, তারা যখন ফলাফল দেখেবেন তখন নিজে থেকেই আপনার প্রশংসা করবেন।

আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং ব্যালেন্স

অন্য কিছু না হলেও অন্তত আপনার নিজের নিরাপত্তার জন্য আপনার কাছে কত টাকা আছে তা গোপন রাখুন। এমনও অনেকে আছেন, যারা আপনার কাছে টাকার গন্ধ পেলে বিভিন্ন কৌশল করতে থাকবে সেগুলো নিজের কব্জায় নেওয়ার।

আপনার দুর্বলতা

প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু দুর্বলতা থাকে। কোনো মানুষই পরিপূর্ণ নয়। আপনারও নিশ্চয়ই এমন কোনো দুর্বলতা রয়েছে। তবে তা কখনোই সবার কাছে বলে বেড়াবেন না। সবাই এটি একভাবে দেখবে না। বেশিরভাগই বিষয়টি নিয়ে আপনার পেছনে মজা ওড়াবে। নিজের দুর্বলতা কাটানোর জন্য আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে লড়াই করে যান, হোক তা ছোট কিংবা বড় কোনো বিষয়।

ফ্যামিলি ড্রামা

কোন পরিবারই নিখুঁত নয়! দূর থেকে সবকিছুই সুন্দর ও নিখুঁত মনে হতে পারে, কিন্তু কাছাকাছি গেলে ধারণা বদলে যেতেও পারে। যদি আপনার পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কোনো সমস্যায় ভোগেন তবে কোনো থেরাপিস্ট বা বিশ্বস্ত বন্ধুর সঙ্গে কথা বলুন। আপনার পরিবারের কথা প্রত্যেকের জানার দরকার নেই। আপনি এখন যাদের কাছে আপনার পরিবারের কথা বলছেন, তাদের নিজের পরিবারের অবস্থা যেমনই হোক না কেন, পেছনে গিয়ে আপনাকে নিয়ে মজা করবে। হয়তো সামনাসামনি তারাই আপনাকে সান্ত্বনা দিয়েছে। আপনার ব্যক্তিগত জীবনকে কেন অর্থহীন গসিপের বিষয় বানাবেন?

আপনার প্রতিভা

যখন দেখানোর সুযোগ আসে তখন বিশ্বকে আপনার প্রতিভা দেখতে দিন। অহংকার করবেন না, সঠিক সময় এবং স্থানের জন্য অপেক্ষা করুন। আপনি যখন লক্ষ্যে পৌঁছাবেন তখন যে ধরণের প্রশংসা পাবেন, আগেভাগে জানিয়ে দিলে তা তো পাবেনই না, উল্টো মানুষেরা আপনাকে নানাভাবে নিরুৎসাহিত করার চেষ্টা করবে।

নিউজনাউ/এবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান