যেভাবে বুঝবেন গণপরিবহনে বাড়তি ভাড়া দেবেন কিনা

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রাম নগরে ডিজেল ও সিএনজিচালিত পরিবহন আলাদাভাবে চিহ্নিতের কাজ শুরু করেছে পুলিশ। পাশাপাশি গণপরিবহনে রুট অনুযায়ী ভাড়ার তালিকাও পুলিশের পক্ষ থেকে লাগিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রেপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির সাথে সাথে গ্যাসচালিত গাড়ির ভাড়া বাড়ানো এবং যাত্রী হয়রানি বন্ধে এক জরুরি সমন্বয় সভা করেছে সিএমপি। বুধবার পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে ডিজেলচালিত যানবাহনগুলোতে লাল এবং সিএনজিচালিত যানবাহনকে সবুজ স্টিকার দিয়ে চিহ্নিত করা হবে। এতে কোন পরিবহনের ভাড়া বেড়েছে সেটা চিহ্নিত করতে সুবিধা হবে যাত্রীদের। এই কাজে বিআরটিএ কর্মকর্তারা পুলিশের সহযোগিতা কামনা করেন। ওই বৈঠকে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের প্রতিনিধিও ছিলেন।

জানতে চাইলে বৈঠকে উপস্থিত নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (পশ্চিম) তারেক আহমেদ বলেন, ‘তিনটি সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রথমত হচ্ছে- বিআরটিএ ভাড়া বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন প্রিন্ট করে আমাদের সরবরাহ করবে। আমরা তাদের নিয়ে সেগুলো সব গণপরিবহনে লাগিয়ে দেব। এরপর রুটভিত্তিক কত ভাড়া বেড়েছে, সেটার তালিকা বিআরটিএ আমাদের সরবরাহ করবে। আমরা সেটিও পরিবহনে লাগাব।’

তিনি আরও বলেন, ‘এরপর হচ্ছে লাল-সবুজ স্টিকার। ডিজেলচালিত যানবাহনের ভাড়া বেড়েছে, সেগুলো লাল স্টিকার দিয়ে চিহ্নিত করা হবে। সিএনজিচালিত পরিবহন সবুজ স্টিকার দিয়ে চিহ্নিত করা হবে। তাহলে সবুজ স্টিকার দেখলে যাত্রীরা আর বাড়তি ভাড়া দেবেন না। বিআরটিএ অনুরোধ করেছে, স্টিকারগুলো পুলিশের পক্ষ থেকে সরবরাহের জন্য। আমরা সেটা দেব। প্রিন্ট হতে বড় জোড় একদিন কিংবা দুইদিন সময় লাগবে। আশা করছি, শুক্রবার বিকেলে অথবা শনিবার সকাল থেকে আমরা এই কার্যক্রম শুরু করতে পারব। আমাদের সঙ্গে বিআরটিএ, পরিবহন মালিক-শ্রমিক প্রতিনিধি এবং সাংবাদিকরাও থাকবেন।’

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান