ফ্রান্সে নতুন শিল্প বিপ্লবের অগ্রদূত ‘ম্যাখো

নিউজনাউ ডেস্ক: ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাঁখো মঙ্গলবার ফ্রান্সকে পুনরায় শিল্পায়নের জন্য ৩০ বিলিয়ন ইউরোর (৩৫ বিলিয়ন ডলার) এক বিশাল পরিকল্পনা ঘোষণা করেছেন। এসময় তিনি বলেন, বৈজ্ঞানিক উদ্ভাবন ও গবেষণায় ফ্রান্সকে তার হারানো মুকুট পুনরুদ্ধার করতে হবে।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ছয় মাস আগে এবং জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনের এক মাস আগে এলিসি প্রাসাদে বক্তৃতাকালে ম্যাঁখো বলেন, ফ্রান্স তার ইউরোপীয় প্রতিবেশীদের চেয়ে ১৫-২০ বছর পরে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এবং ফরাসিদের এখন আবার উদ্ভাবন ও গবেষণার জাতিতে পরিণত হওয়া প্রয়োজন।

এলিসি প্রাসাদের ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত কোম্পানির নেতৃবৃন্দ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, অতীতে অপর্যাপ্ত বিনিয়োগের ফলে ফ্রান্সে যে ‘প্রবৃদ্ধির ঘাটতি’ দেখা দিয়েছে তা মোকাবেলার জন্য এই অর্থ ব্যয় করা হবে।

তিনি বলেন, ফ্রান্সকে ‘একটি গুণী চক্র’-এ ফিরে যেতে হবে, যার মধ্যে রয়েছে ‘উদ্ভাবন, উৎপাদন এবং রপ্তানি। এবং সেইভাবেই আমাদের সামাজিক মডেলকে অর্থায়ন করতে হবে’। একটি নতুন ‘ফ্রান্স ২০৩০’ পরিকল্পনার অংশ হিসাবে এসব করা হবে।

ফ্রান্সের লক্ষ্য আগামী এক দশকে সবুজ হাইড্রোজেনে বৈশ্বিক নেতা হওয়া। জীবাশ্ম জ্বালানী ভিত্তিক আর্থিক খাতগুলোকে কার্বনমুক্ত করার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন কোম্পানি এবং সরকারগুলো সবুজ হাইড্রোজেনকে তাদের পরিকল্পনার কেন্দ্রে রাখছে।

ম্যাঁখো ইস্পাত উৎপাদন, সিমেন্ট এবং রাসায়নিক খাতের পাশাপাশি ট্রাক, বাস, রেল এবং বিমান পরিবহন শিল্পের কথা উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, কোভিড-১৯ মহামারীর পর, ‘যা আমাদেরকে আমাদের দুর্বলতাগুলোর মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছিল’, ফ্রান্সকে ফরাসি এবং ইউরোপীয় উৎপাদন স্বায়ত্তশাসনের জন্য কাজ করতে হয়েছে। ফ্রান্সেরও চিকিৎসা গবেষণায়ও ব্যাপক বিনিয়োগের প্রয়োজন।

বিশ্বব্যাপী কোভিড প্রাদুর্ভাবের পর ফরাসি ওষুধ কোম্পানিগুলো কোনো ভ্যাকসিন নিয়ে আসতে পারেনি। ম্যাঁখো বলেন, এখন ফ্রান্সের লক্ষ্য হল ক্যান্সারের বিরুদ্ধে কমপক্ষে ২০টি বায়োটেক ওষুধ তৈরি করা, সেইসঙ্গে বার্ধক্যজনিত রোগসহ উদীয়মান ও দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতার বিরুদ্ধে লড়াই করা। ‘এই লক্ষ্যে আমাদের সমস্ত প্রচেষ্টা মনোনিবেশ করা দরকার’।

নিউজনাউ/এসএ/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: