রান্নায় বাড়তি লবণ কমানোর উপায়

নিউজনাউ ডেস্ক: লবণ ছাড়া যেমন কোন রান্নায় সম্পন্ন হয় না তেমনি লবণ বেশি পড়লে রান্না খাওয়া যায় না। তাই লবণের পরিমাণটা জানতে হয় রান্নার সময়। অনেক সময় তাড়াহুড়ো করতে গিয়ে রান্নায় লবণ পড়ে যায়। এতে দুশ্চিন্তার কিছু নেই। লবণ বেশি হয়ে গেলেও কমানোর দারুণ সব উপায় আছে। জেনে নিন উপায় গুলো।

১/ অতিরিক্ত লবণ দিয়ে ফেললে সেই রান্নায় সঙ্গে সঙ্গে পানি মিশিয়ে নিন। পানি মিশিয়ে দিলে লবণের সঙ্গে খাবারের সামঞ্জস্য হতে পারে। সেইসঙ্গে পরিমাণমতো সবজিও মিশিয়ে দিতে পারেন। যদি মাংসতে লবণ বেশি হয়ে যায়, তবে মাংসের টুকরোগুলো তুলে ধুয়ে নিন। এরপর আবার মিশিয়ে নিন।

২/ যে কোন তরকারিতেই লবণ বেশি হলে বেরেশ্তা যোগ করুন। এতে ঝোল ঘন হবে, স্বাদে যোগ হবে বাড়তি মাত্রা, অন্যদিকে লবণটাও কবে আসবে।

৩/ রান্নায় লবণ বেশি হলে তা থেকে বাঁচাতে পারে আলু। কয়েকটি আলু কেটে ধুয়ে রান্নায় মিশিয়ে দিন। কাঁচা আলু অতিরিক্ত লবণ শুষে নেবে। এভাবে মিনিট বিশেক রেখে এরপর আলুগুলো তুলে নিন। তাহলে লবণ অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

৪/ সবজি ভাজিতে লবণ বেশি হয়ে গেলে যোগ করুন অনেকটা কাঁটা পেঁয়াজ ও ধনেপাতা। টমেটো কুচিও দিতে পারেন। তারপর ভালো করে ভেজে নিন আবার। দেখবেন লবণ হয়ে গিয়ে সহনীয় মাত্রায়।

৫/ রান্নায় লবণ বেশি হয়ে গেলে খাবারটি নষ্ট হয়ে গেল বলে একদমই মন খারাপ করবেন না। কারণ এক্ষেত্রে লবণ কমানোর জন্য আপনাকে সাহায্য করবে টক দই। রান্নায় এক টেবিল চামচ টক দই মিশিয়ে নিন। এতে রান্নার স্বাদ বদলে যাবে। সেই সঙ্গে রান্নার বাড়তি লবণের স্বাদও স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

৬/ অতিরিক্ত লবণের স্বাদ দূর করতে সাহায্য করবে ফ্রেশ ক্রিম। আপনার রান্নায় যদি লবণ বেশি হয়ে যায় তবে ব্যবহার করতে পারেন ফ্রেশ ক্রিম। এতে রান্নায় একটি ক্রিমি ভাব আসবে। লবণের পরিমাণও কমে যাবে।

৭/ তরকারির অতিরিক্ত লবণ স্বাভাবিক করতে ব্যবহার করতে পারেন ভিনেগার ও চিনি। এক টেবিল চামচ চিনির সঙ্গে এক টেবিল চামচ ভিনিগার মিশিয়ে নিন। এটি রান্নায় লবণের স্বাদে সামঞ্জস্য আনবে। ভিনিগার টক ও চিনি মিষ্টি, তাই আপনার রান্নায়ও বাড়তি স্বাদ যোগ হবে।

৮/ খাবারের অতিরিক্ত লবণ স্বাভাবিক করার জন্য ব্যবহার করুন পেঁয়াজ। কাঁচা কিংবা ভাজা, দুই রকম পেঁয়াজই কার্যকরী এক্ষেত্রে। একটি বড় পেঁয়াজ দুই টুকরো করে রান্নায় মিশিয়ে নিন। কয়েক মিনিট পর ঝোল থেকে তুলে নিন। ঝোলের অতিরিক্ত লবণ শুষে নেবে কাঁচা পেঁয়াজ। একইভাবে ভাজা পেঁয়াজও ব্যবহার করতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে পেঁয়াজ তুলে নেওয়ার প্রয়োজন নেই।

৯/ তরকারী বা ডাল থেকে লবণ কমানোর সবচাইতে সহজ উপায় হচ্ছে ময়দা দিয়ে খামির তৈরি করুন। তারপর ছোট ছোট বল আকারে তৈরি করে ঝোল বা ডালের মাঝে ফুটতে দিন। লবণ অনেক পরিমাণে কমে আসবে।

১০/ লবণ কমাতে আরেকটি ভীষণ কাজের জিনিস হলো দুধ। দুধ যোগ করলে সেটা স্বাদে কোন হেরফের করবে না। কিন্তু আপনার তরকারির লবণ কমিয়ে দেবে একদম।

নিউজনাউ/এসজিএস/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: