যেসব খাবার পেটের ফোলাভাব কমাবে

নিউজনাউ ডেস্ক: পেট ফুলেফেপে ওঠে সমস্যা অনেকেরেই রয়েছে। শরীর দীর্ঘদিন ধরে তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি ও খাবার না পেলে ‘স্টারভেশন’ অবস্থায় চলে যায়। প্রয়োজনের তুলনায় কম পরিমাণে খাবার পাওয়ার কারণে শরীর সেই খাবার ব্যবহার করার পরিমাণ কমিয়ে দেয় এবং খাবারকে জমিয়ে রাখতে শুরু করে। আর এটির কারণে কোষ্ঠকাঠিন্য বা অতিরিক্ত গ্যাস্ট্রিকের মতো সমস্যাও দেখা দিতে পারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বদহজমের কারণেই পেট ফুলে উঠতে পারে। অতিরিক্ত গ্যাস্ট্রিকের কারণে বা খাবার সঠিকভাবে হজম না হলে এ সমস্যাটি হয়ে থাকে।

কিছু খাবার খেলে দূর করতে পারে পেটের এই সমস্যা। আজ জানিয়ে দিবো যেসব খাবার পেটের ফোলাভাব কমাবে তার তালিকা।

১/ গ্রিন টিঃ গ্রিন টি শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে সাহায্য করে। এ ছাড়া এতে এপিগালোক্যাটেকিন গ্যালেটের মতো অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ও ক্যাফেইন থাকে। আর এ কারণে এটি শরীরের প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে এবং পেটের ফোলাভাব কাপে পারে।

২/ শসাঃ আমরা প্রায়ই খাওয়ার পর শসা খেয়ে থাকি। আর এটিও আপনার পেটের ফোলাভাব কমাতে পারে। শসায় প্রায় ৯৫ শতাংশ পানি থাকার কারণে এটি আমাদের হাইড্রেটেড রাখতে এবং আমাদের শরীরে তরলের চাহিদা মেটাতেও সাহায্য করে।

৩/ অ্যাভোকাডোঃ এই ফলটি অত্যন্ত পুষ্টিকর একটি ফল। এতে ফোলেট, ভিটামিন সি ও কের পাশাপাশি এটি পটাশিয়ামেরও অনেক ভালো উৎস। এ ছাড়া অ্যাভোকাডোতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে। আর এ কারণে এটি পাচনতন্ত্রের মাধ্যমে ধীরে ধীরে চলাচল করে এবং পেটের ফোলাভাব দূর করার পাশাপাশি কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাও প্রতিরোধ করে।

৪/ দইঃ দইয়ে প্রচুর পরিমাণে প্রোবায়োটিক থাকে। আর প্রোবায়োটিক হচ্ছে— একটি উপকারী ব্যাকটেরিয়া, যা অন্ত্রের স্বাস্থ্যের ভালো রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কিছু গবেষণার মতে, প্রোবায়োটিক মলের গতিবিধি ঠিক রাখতে এবং নিয়মিতভাবে হতে সহায়তা করে। এ ছাড়া এই উপাদানটি পেটের জ্বালাপোড়া এবং পেটের ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে।

৫/ হলুদঃ আমাদের দেশে রান্নাতে ব্যবহার করা হয় এমন মসলার সবচেয়ে পরিচিত হচ্ছে হলুদ। আর এটির ঔষধি গুণাগুণও অনেক আগে থেকেই প্রচলিত। এতে কারকিউমিন নামে একটি যৌগ থাকে, যেটি শরীরে প্রদাহবিরোধী হিসেবে কাজ করে। গবেষণার মতে, হলুদে থাকা কারকিউমিন, অন্ত্রের স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে, গ্যাস, কোষ্ঠকাঠিন্য এবং পেটের ফোলাভাবের লক্ষণগুলো কমাতে পারে।

৬/ বেরি জাতীয় ফলঃ স্ট্রবেরি, ব্লুবেরি বা ব্লাকবেরি জাতীয় ফলগুলো বাজারে পাওয়া যায় এখন। এ ফলগুলো আপনার পেটের ফোলাভাব কমাতে সহায়তা করতে পারে। এ ফলগুলোতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার থাকে, যা আপনার কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে এবং পেট ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে।

৭/ কলা, পেঁপে, আনারস, আপেলঃ এ ফলগুলো পেটের জন্য অনেক স্বাস্থ্যকর হয়ে থাকে। এ ছাড়া এসব ফলের বিভিন্ন পুষ্টিগুণ পেটের জন্য উপকারী ও পেটের ফোলাভাব দূর করতে সহায়তা করে এমনটি দেখা গেছে বিভিন্ন গবেষণায়।

৮/ আদাঃ অনেক আগে থেকেই আদাকে হজম সমস্যার সমাধানে ভেষজ উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। গবেষণায় দেখা গেছে যে, আদা পেট ফাঁপা বা ফোলাভাবের অনুভূতি দূর করতে পারে।

৯/ পানিঃ শরীর থেকে বর্জ্য বের করে দিতে পানির ভূমিকা অসাধারণ। প্রতিদিন ১০ থেকে ১২ গ্লাস পানি ওজন হ্রাসে সরাসরি ভূমিকা রাখে। পানি শরীরকে সতেজ রাখে, অযথা ক্ষুধাভাবকে দূর করে। বারবার পানি পান করার ফলে শরীর চাঙাবোধ করে। মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায়। তাই ওজন কমানোর অন্যতম আরেকটি জরুরি পদক্ষেপ পানি খাওয়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দেওয়া।

১০/ আঁশজাতীয় খাবারঃ এই ধরনের খাবার রক্তে ইনসুলিনের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে, যা রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। আঁশজাতীয় খাবারে ভিটামিন-বি বেশি থাকে, যা রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। পাশাপাশি আমাদের বেসাল মেটাবলিক রেট (বিএমআর) সচল রাখার মাধ্যমে শরীরকে তার খাবার পরিপূর্ণভাবে সদ্ব্যবহার করতে সাহায্য করে। শরীরে অতিরিক্ত ক্যালরি জমা রাখার প্রবণতা কমাতে আঁশজাতীয় খাবারের জুড়ি মেলা ভার।

 

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান