লোহাগাড়ায় ‘বিশাল সমাবেশের’ আগের রাতে নদভীর বাসায় বিপ্লব-নওফেল

চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ সকাল থেকেই চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উচ্ছ্বাস। একটু পরই সেখানে অনুষ্ঠিত হবে ‘বিশাল রাজনৈতিক’ সমাবেশ। জাতীয় শোক দিবসের এই সমাবেশে ক্ষিণ চট্টগ্রামের রাজনীতিতে বিভিন্ন কারণে এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে। কারণ এই সমাবেশে একই মঞ্চে বক্তৃতা করবেন দক্ষিণের দুই এমপিসহ আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ তিন নেতা।

এদিকে সমাবেশের আগের রাতে চট্টগ্রাম ১৫ আসনের সাংসদ আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুউদ্দিন নদভীর শহরের বাসভবনে এক সৌহার্দপূর্ণ আলোচনায় মিলিত হয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া। নওফেল এবং বিপ্লব বড়ুয়াকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন নদভী। রাত সাড়ে ৮টা থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত চলা আলোচনায় কেন্দ্রের নির্দেশে তৃণমূল আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করার আলাপ হয়েছে বলে জানিয়েছেন বৈঠকে উপস্থিত এক নেতা। নওফেলের উপস্থিতিতে এ আলোচনা নদভী ও বিপ্লব বড়ুয়ার মধ্যে সৃষ্ট দূরত্বের অবসান বলেও জানিয়েছেন সেই নেতা।

একসময়ে বিএনপি-জামাতের দুর্গ খ্যাত সাতকানিয়া-লোহাগাড়ায় আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ তিন নেতা সাংসদ আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামুউদ্দিন নদভী, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া এবং আওয়ামী লীগের উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন এর মধে চলছিল স্নায়ুযুদ্ধ! সোমবারের এই শোক সভার সমাবেশের মঞ্চে এই তিন নেতার ঐক্যবদ্ধ শক্তি দক্ষিণ জেলার আওয়ামী লীগ এর রাজনীতিতে বড় প্রভাবক হবে বলেই মনে করছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীরা। একই সমাবেশে বক্তৃতা করবেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ এমপি ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান। সম্প্রতি চট্টগ্রামের সিআরবি রক্ষা আন্দোলন নিয়ে বেশ মুখোমুখি অবস্থানে আছেন এই দুই নেতা। আন্দোলনের পক্ষে-বিপক্ষে কথা বলে আলোচিত-সমালোচিত হয়েছেন দুই নেতা। যদিও নগরের সিআরবি রক্ষার আন্দোলনের প্রসঙ্গটি নিজেদের মাথাব্যথার কারণ নয় বলে বলছেন লোহাগাড়ার তৃণমূল নেতাকর্মীরা।

সোমবার (৩০ আগস্ট) সকাল ১০ টায় লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের এ শোকসভা অনুষ্ঠিত হবে মোস্তাফিজুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস ঘিরেই এ আয়োজন।

জানা গেছে এই সমাবেশে উপজেলা আওয়ামী লীগের ৫ থেকে ৭ হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত হবেন। সমাবেশ শেষে দুপুরে রাখা হয়েছে ভোজের আয়োজন।

এদিকে রাতে সভাস্থল ঘুরে গেছেন লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ জাকের হোসাইন মাহমুদ। তিনি বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের শোকসভা উপলক্ষে এলাকায় সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক টিম প্রস্তুত। যেকোনো অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তত রয়েছে স্পেশাল ফোর্স।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: