পাবনায় স্কুলছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় মামলা, চিঠি উদ্ধার

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনায় স্কুলছাত্রী মৃত্যুর ঘটনায় মামলা হয়েছে। মৃত্যুর ২৪ ঘণ্টা পার হলেও অভিযুক্ত কিশোরকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। তবে স্কুলছাত্রীর বাড়ি থেকে তার হাতে লেখা চিঠি উদ্ধার করেছে। যে চিঠিতে ‘তার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়’ বলে উল্লেখ করেছে।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বলেন, স্কুলছাত্রী মৃত্যুর ঘটনায় তার বাবা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার সকালে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় একই গ্রামের এক কিশোর (১৭) কে আসামী করা হয়েছে। এদিন নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ওসি বলেন, ঘটনার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিভিন্নভাবে মেয়েটির মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধান করছে। তার বাড়ি থেকে দু’টি চিঠি জব্দ করা হয়েছে। যেখানে মৃত্যুর আগে সে লিখে গেছে ‘তার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়। তার মা ভুল বুঝে বকাঝকা করেছে। পরিবারকে ভালবাসে। সেজন্য ওষুধ খেয়েছে। বিদায়।’ এরকম আরও বেশকিছু কথা লিখে গেছে চিঠিতে।

ওসি আমিনুল বলেন, হাসপাতাল থেকে চিকিৎসকরাও মেয়েটির মৃত্যুর কারণ হিসেবে প্রাথমিকভাবে ‘আন পয়জনিং হার্ট অ্যাটাক’ হিসেবে উল্লেখ করেছে। অর্থাৎ বিষাক্ত কোনো কিছু খাওয়ার পর হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে।

সদর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, আমাদের নারী পুলিশ সদস্যরা মেয়েটিকে পরীক্ষা করে রক্তক্ষরণের কিছু নমুনা দেখতে পায়নি। যেহেতু পরিবার ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন, সে অভিযোগ ও সংশ্লিষ্ট সব ঘটনা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ। তারপর চিকিৎসকের প্রতিবেদন ও ময়না তদন্ত প্রতিবেদন সবগুলো খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অভিযুক্ত কিশোরকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

নিহত স্কুলছাত্রীর পরিবারের অভিযোগ, গত এক বছর ধরে ওই ছাত্রীকে নানাভাবে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্যক্ত করে আসছিল একই এলাকার এক কিশোর। তার উত্যক্তের কারণে ওই স্কুলছাত্রীকে পার্শ্ববর্তী নানার বাড়িতে রেখে পড়াশোনা করানো হচ্ছিল। কয়েকদিন আগে এসাইনমেন্ট জমা দিতে বাড়িতে আসে ওই স্কুলছাত্রী। গত বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে স্কুলছাত্রী বাড়িতে একা থাকার সুযোগে তাকে ধর্ষণ করে ওই কিশোর। পরে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা আড়াইটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: