কাঠগড়ায় প্রদীপকে মোবাইল দেয়া ৪ পুলিশ প্রত্যাহার

চট্টগ্রাম ব্যুরোঃ অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের সময় আদালতে মুঠোফোনে কথা বলছিলেন টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ। এই ছবি ফেসবুক ভাইরাল ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। এ ঘটনায় আদালতে দায়িত্ব অবহেলার কারণে এক এসটিআইসহ ৪ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে ওসি প্রদীপকেও সতর্ক করা হয়েছে।

বুধবার (২৫ আগস্ট) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার (এসপি) মো. হাসানুজ্জামান।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় এসটিআই শাহাব উদ্দিনসহ ৪ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তাদের পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া এই ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।

কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সোমবার সিনহা হত্যা মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয়। সাক্ষ্য গ্রহণের প্রথম দিনে কাঠগড়ায় ছিলেন প্রদীপসহ মামলার ১৫ আসামি।

প্রদীপের পরনে ছিল কালো রঙের জামা। ভাইরাল ছবিতে যে ব্যক্তিকে কথা বলতে দেখা যাচ্ছে, তার পরনেও ছিল কালো জামা।ছবিতে দেখা যাচ্ছে, কাঠগড়ার ভেতরে হাঁটুর ওপর ভর দিয়ে বসে আছেন এক ব্যক্তি। হাতে থাকা মোবাইল ফোনে কারও সঙ্গে তিনি কথা বলছেন। তার মাথায় চুল কম। তাকে ঘিরে কয়েকজন দাঁড়িয়ে আছেন।

মঙ্গলবার সাক্ষ্য গ্রহণের দ্বিতীয় দিন প্রদীপ আদালতে আসেন গোলাপি রঙের জামা পরে। এ সময় তাকে ঘিরে রাখেন পুলিশ সদস্যরা।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে একজন প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, কাঠগড়ায় মোবাইল ফোনে প্রদীপই কথা বলেন। বেশ লম্বা সময় তাকে ফোনে ব্যস্ত থাকতে দেয়া যায়। তিনি কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলে থাকতে পারেন। কথা বলার জন্য ফোনটি প্রদীপকে দেন এক পুলিশ সদস্য।

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: