গরুর মাংসের শুটকি রেসিপি

নিউজনাউ ডেস্ক: শুটকি শুনলেই মাছের কথা মনে আসে তবে মাংসেরও যে শুটকি হয় তা অনেকেরেই অজানা। পূর্বে যখন ফ্রিজ ছিলোনা তখন মানুষ মাংস রোদে শুকিয়ে সংরক্ষণ করতো। এখন এই প্রচলন অনেক কমে গেছে। তবে কিছু কিছু এলাকায় এখনো মাংসের শুটকি এখনও একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার। ময়মনসিংহ ও শরীয়তপুর এলাকাগুলোতে এখনও এই শুটকির কদর এক ফোঁটাও কমে নি। তাহলে জেনে নেওয়া যাক মাংসের শুটকির রেসিপি।

উপকরণসমূহঃ

১.গরুর মাংসের শুটকি- ১/২ কেজি

২.পেঁয়াজ বাটা- ১ টেবিল চামচ

৩.রসুন বাটা- ১ টেবিল চামচ

৪.আদা বাটা- ১ টেবিল চামচ

৫.মরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ

৬.হলুদ গুঁড়া- ১/২ চা চামচ

৭.ধনিয়ে গুঁড়া- ১ চা চামচ

৮.জিরা বাটা/ জিরা গুঁড়া- ১/২ চা চামচ

৯.কাঁচা মরিচ- ২ চা চামচ

১০.এলাচ-৩ টি

১১.দারচিনি টুকরা- ৩টি

১২.তেজপাতা- ৩/৪টি

১৩.তেল- ১/৩ কাপ

১৪. লবণ- পরিমাণমতো

শুটকি বানানোর পদ্ধতিঃ

আগে থেকে হাড় ছাড়া গরুর মাংস ছোট ছোট টুকরা করে কেটে নিন।এরপর হলুদ আর লবন দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। এরপর লম্বা তার অথবা তারের মত মজবুত সুতাতে বড় সুই দিয়ে মাংসের টুকরা গুলোকে গেঁথে নিন। তারপর খুব করা রোদ এ ২-৩ দিন শুকাতে দিন।হলুদ আর লবন প্রিজারভেটিভ হিসেবেকাজ করে তাই আলাদাভাবে সেদ্ধ করার বা বাড়তি কিছু যোগ করার প্রয়োজন নেই।

রন্ধনপ্রনালিঃ

প্রথমে গরুর মাংসের শুটকি গরম পানিতে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। প্রেসার কুকারে সামান্য পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। এরপর কড়াইয়ে তেল গরম করে সব গরম মসলা দিয়ে ভাজতে থকুন। লবণ দরকার হলে দিয়ে নিন। এরপর এতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে আরও কিছুক্ষণ মসলা দিয়ে কষিয়ে নিন। মসলা কষানো হয়ে গেলে, তাতে গরুর মাংসের শুটকি দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিন। এরপর যে গরম পানি তে মাংসের শুটকি ভিজিয়ে রেখেছিলেন তা দিয়ে দিন। এটি বীফ স্টকের মতো কাজ করবে। ঢাকনা দিয়ে রাখুন। পানি শুকিয়ে তেল উপরে ভেসে উঠলে নামিয়ে নিন। তৈরি হয়ে গেলো মাংসের শুটকি ভুনা।

 

 

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: