করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট জলবসন্তের মতো ছড়ায়: সিডিসি

নিউজনাউ ডেস্ক: করোনার অতি সংক্রামক ডেল্টা ধরন আরেক তীব্র ছোঁয়াচে রোগ জলবসন্তের জীবাণুর মতো খুব সহজে ও দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। করোনার টিকা নেওয়ার ফলে মানবদেহে যে প্রতিরোধী ব্যবস্থা গড়ে ওঠে, তাকেও ফাঁকি দিতে সক্ষম এই ডেল্টা ধরন।

যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ সংস্থা সিডিসির (সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন) করা অভ্যন্তরীণ একটি প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে আজ শুক্রবার এই তথ্য জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম সিএনএন ও নিউইয়র্ক টাইমস।

সিডিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ও মানুষকে সংক্রমিত করার ক্ষেত্রে মার্স, সার্স, ইবোলা ও ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসকেও পেছনে ফেলেছে ডেল্টা। এমনকি মূল করোনাভাইরাসের চেয়েও এর সংক্রমণ ক্ষমতা কয়েকগুণ বেশি।

এ সম্পর্কে প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনাভাইরাসের মূল ধরনটি এতটা সংক্রামক ছিল না, সেটা ছিল অনেকটা সাধারণ সর্দি-জ্বরের ভাইরাসের মতো, যেখানে একজন সংক্রমিত ব্যক্তি গড়ে আরও দুইজনকে আক্রান্ত করতে পারতেন।

কিন্তু ডেল্টায় আক্রান্ত একজন রোগীর দ্বারা সংক্রমিত হতে পারেন গড়ে অন্তত ৮ থেকে ৯ জন মানুষ। এমনকি, করোনা টিকার ডোজ নেওয়ার পরও যদি কেউ ডেল্টায় আক্রান্ত হন, সেক্ষেত্রে তিনি নিজের নাক ও গলায় টিকা না নেওয়া ব্যক্তিদের মতো বিপুল পরিমাণ ভাইরাস বহন করেন।

একটি ভাইরাসের সংক্রমিত হওয়ার ক্ষমতাকে বিজ্ঞানের ভাষায় বলা হয় ‘আর জিরো’। সিডিসির পরিচালক র‌্যাচেল ওয়ালনস্কি নিউইয়র্ক টাইমসকে জানান, ডেল্টার সংক্রমণ ক্ষমতা বা ‘আর জিরো’ ৮ এর কিছু বেশি এবং আট বা নয় মাত্রার ‘আর জিরো’ আছে- এমন ভাইরাস পৃথিবীতে খুব বেশি নেই।

তবে টিকার প্রতিরোধী শক্তিকে ফাঁকি দিতে সক্ষম হলেও ডেল্টার সংক্রমণ প্রতিরোধে করোনা টিকার বিকল্প আপতত নেই বলে জানিয়েছেন র‌্যাচেল ওয়ালনস্কি। তিনি জানান, ইতোমধ্যে একাধিক বৈজ্ঞানিক গবেষণায় প্রমাণ হয়েছে- বর্তমানে প্রচলিত টিকাসমূহ করোনা সংক্রমণ পুরোপুরি প্রতিরোধ করতে না পারলেও এ রোগে গুরুতর অসুস্থতা ও মৃত্যু থেকে সুরক্ষা দিতে সক্ষম।

নিউজনাউ/এসএ/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান