অন্যকে জেল খাটানো হত্যা মামলার আসামি কুলসুমী গ্রেপ্তার

চট্টগ্রাম ব্যুরো: অন্যের হয়ে তিন বছর জেল খেটেছিলেন মিনু আক্তার। যার হয়ে মিনু জেল খেটেছিলেন এক গৃহকর্মী হত্যা মামলার আসামি কুলসুমী আক্তারকে অবশেষে গ্রেপ্তার করেছে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। গ্রেপ্তার কুলসুমী ও তার সহযোগী মর্জিনা আক্তারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) নগরের পতেঙ্গা থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নিউজনাউকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি কুলসুমী লোহাগাড়া উপজেলার গৌরস্থান মাঝের পাড়া আহাম্মদ মিয়ার বাড়ির আনু মিয়ার মেয়ে। তবে তার বর্তমান ঠিকানা কোতোয়ালী থানাধীন রহমতগঞ্জ সাঈদ ডাক্তারের ভাড়া বাড়ি।

জানা গেছে,  মোবাইল ফোন নিয়ে কথা-কাটাকাটির জেরে ২০০৬ সালের ৯ জুলাই চট্টগ্রাম নগরের রহমতগঞ্জ এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় পোশাককর্মী কোহিনুর বেগমকে হত্যা করা হয়। ২০১৭ সালের ৩০ নভেম্বর এ মামলার রায়ে আসামি কুলসুমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত। রায়ের দিন কুলসুম আদালতে অনুপস্থিত থাকায় আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

প্রকৃত আসামি কুলসুম আক্তার মামলার সাজা হওয়ার আগে ২০০৭ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত কারাগারে ছিলেন। সাজার পরোয়ানামূলে কুলসুম আক্তার কুলসুমীর পরিবর্তে মিনু ২০১৮ সালের ১২ জুন কারাগারে যান। গত ১৮ মার্চ চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. শফিকুল ইসলাম খান নারী ওয়ার্ড পরিদর্শনকালে মিনু কোনো মামলার আসামি নন বলে জানান।

পরে হাইকোর্ট গত ৭ জুন নিরপরাধ মিনুকে মুক্তির নির্দেশ দেন। সেই সঙ্গে প্রকৃত আসামি কুলসুমীকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছিলেন। ১৬ জুন চট্টগ্রাম কারাগার থেকে মুক্তি পান নিরপরাধ মিনু। যদিও ২৮ জুন সড়ক দুর্ঘটনায় দুনিয়া থেকেই মুক্তি মেলে নিরাপরাধ মিনুর!

নিউজনাউ/পিপিএন/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: