রংপুরে বাড়ছে নমুনাজট, ফলাফলের আগেই হচ্ছে মৃত্যু

রংপুর ব্যুরো: রংপুরে জ্বর, সর্দি, কাশি ও স্বাসকষ্টে ভোগা রোগীরা শঙ্কায় যেমন পড়েছেন, তেমনি বেড়েছে নমুনা দেওয়ার হারও। এ কারণে পিসিআর ল্যাবে জট দেখা দিয়েছে, নমুনা পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে ঢাকায়। রংপুরসহ চার জেলার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের নমুনা পরীক্ষা প্রায় বন্ধ হয়ে আছে। রংপুর মেডিকেল কলেজের একমাত্র পিসিআর ল্যাবের সক্ষমতার চেয়ে অনেক বেশি নমুনার জটের সৃষ্টি হয়েছে।

ইতোমধ্যে সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি নমুনা পরীক্ষা করতে না পারায় ঢাকায় পাঠানো হয়েছে, তবে দীর্ঘ ১২ দিনেও নমুনা পরীক্ষা সম্পন্ন হয়নি। আর এই সময়ে ফলাফলের অপেক্ষায় অসুস্থ হয়ে মারা গেছেন অন্তত ১০ জন।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, রংপুর বিভাগের আট জেলায় করোনাভাইরাস সংক্রমণ ভয়াবহ আকার ধারণ করায় নমুনা পরীক্ষার হারও বেড়েছে। গত ১৭ দিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২২৬ জন। গত এক মাস ধরে রংপুর অঞ্চলে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় নমুনা দেওয়া রোগীর সংখ্যাও বেড়েছে। ফলে সক্ষমতার বাইরে প্রায় আড়াই হাজার নমুনা পরীক্ষার অভাবে পিসিআর ল্যাবে পড়ে আছে। বিশেষ ব্যবস্থায় আড়াই হাজার নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হলেও ১২ দিনেও প্রতিবেদন আসেনি।

রংপুর সিটি করপোশেনের স্বাস্থ্য বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানান, ‘নমুনার জট তৈরি হওয়ায় তারা নমুনা সংগ্রহ বন্ধ রেখেছেন। খুব জরুরি না হলে নমুনা নেওয়া হচ্ছে না। শুধুমাত্র সিটি করপোরেশনের ৮ শতাধিক নমুনা পরীক্ষার জন্য পড়ে আছে, রিপোর্ট আসছেনা।’ নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পেতে দেরি হলে সংক্রমণ বাড়ারও শঙ্কা থাকে। তবে নমুনা পরীক্ষার অভাবে বেশ কয়েকজন রোগী মারা যাওয়ার বিষয়টি তিনি কৌশলে এড়িয়ে যান।

নিউজনাউ/এসএ/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: