বরিশালে ৯৯৯-এ কল, ভিজিএফের চাল উদ্ধার

বরিশাল ব্যুরো: পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সরকার দেশের দরিদ্র জন-গোষ্ঠীকে ১০ কেজি করে চাল দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় বরিশাল সদর উপজেলার (১০) নং টুংগীবাড়িয়া ইউনিয়ন চন্দ্রমোহন এলাকায় চাল বিতরণের সকল প্রস্তুতি সম্পূর্ণ করেছে ইউনিয়ন পরিষদ।

সূত্রে জানা গেছে, চন্দ্রমোহন ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় দরিদ্রদের ২২ টন চাল বিতরণ করবে। বরিশাল সদর খাদ্য গুদাম থেকে চাল উত্তোলন করে নিয়ে যায়।

তবে বুধবার সন্ধ্যা রাতে ৯৯৯ চাল চুরির সংবাদ পায় পুলিশ। কল পেয়ে ঘটনাস্থলে হাজির বন্দর থানা পুলিশের একটি টিম।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল সদর উপজেলার ১০ নং টুংগীবাড়িয়া ইউনিয়নের টুমচর গ্রামের শিরিন নামের এক নারীর ঘর থেকে সরকারী বস্তা সহ চাল জব্দ করা হয়েছে। তবে পুলিশ এখনো নিশ্চিত নয় যে এই চাল চোরাই কি না ।

ঘটনাস্থলে থাকা বন্দর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি অপারেশন) হরিদাস নাথ জানান, আমরা ৯৯৯ এর ফোন পেয়ে এই খানে আসি এবং চাল জব্দ করে বরিশাল সদর উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে। তারা আসলেই ঘটনার সতত্য যাচাই পূর্বক ব্যবস্থা নিবেন।

এ বিষয়ে বরিশাল সদর উপজেলার ইউএনও মোঃ মুনিবুর রহমান জানান, আমরা সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষনিক ট্যাগ অফিসার ও উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি।

যদি তারা কোন রকম অনিয়ম পায় তাহলে দায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। চাল ক্রয় করা শিরিন বেগম জানান, আমি তো অতকিছু বুঝি না। আমি আমাদের বাড়ির আলম খানের কাছ থেকে কিনেছি। তবে কোথার চাল আমি সেটাও জানি না। এব্যাপারে অভিযুক্ত আলম খানকে খুঁজে পাওয়া যায় নি।

বিষয়টি নিয়ে কথা হয় ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল আজিজ খানের সাথে, তিনি বলেন, আমার ইউনিয়ন পরিষদের গোডাউনে চাল রাখা আছে।

সেখানে কোন কম নেই । কে কোথায় থেকে এই চাল কিনেছে আমি জানি না। প্রশাসনের লোকজন এসে গুনে দেখুক আমার চাল কম আছে কি না। কম থাকলে আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে আমি মাথা পেতে নিব।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: