কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে কার্বন নিঃসরণ এখন প্রায় শূণ্য : অর্থমন্ত্রী

নিউজনাউ ডেস্ক : অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল বলেছেন, রামপালসহ দেশের কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো থেকে কার্বন নিঃসরণ প্রায় শূণ্যে পৌঁছেছে। পরিবেশ দূষণের যে কথা বলা হয়, আধুনিক ও নতুন প্রযুক্তি ব্যবহারের কারণে তা হচ্ছে না বললেই চলে। অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, পরিবেশ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সম্মেলনেও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হবে। এছাড়া, বিশ্বের বিভিন্ন দেশেও কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাণ চলছে।

আজকের ভি টোয়েন্টি ক্লাইমেট ভালনারেবল ফাইনান্স সামিট উপলক্ষ্যে বুধবার রাজধানীতে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল এসব কথা বলেন। সাম্প্রতিক সময়ে ১০টি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র বাতিলের বিষয়ে করা সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, এ বিষয়ে সরকারের স্বল্পমেয়াদি কোন পরিকল্পনা নেই। যা এখনই কার্যকর করতে হবে।

আ হ ম মুস্তাফা কামাল বলেন, কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য এখন আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে। এতে কার্বন নিঃসরণ শূণ্যের কোঠায় নেমে এসেছে। পরিবেশের ওপর কোন ক্ষতিকর প্রভাব পড়ার সুযোগ নেই। উন্নত দেশগুলোও কার্বন নিঃসরণ কমিয়ে এনে কয়লা থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করছে। বিদ্যুতের চাহিদা পূরণ করছে। এসময় মাতারবাড়ি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র কার্বণ শূণ্য হবে বলেও উল্লেখ করেন অর্থমন্ত্রী।

মাতারবাড়ি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র (নির্মাণাধীন)

আ হ ম মুস্তাফা কামাল আরো বলেন, বাংলাদেশে যে পরিমাণ উন্নয়ন চলছে, তার জন্য বিদ্যুতের কোন বিকল্প নেই। বিদ্যুৎ ছাড়া উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা যাবে না বলেও মন্তব্য করেন অর্থমন্ত্রী।

সৌর বিদ্যুতের সম্ভাবনার বিষয়ে কথা বলেন আ হ ম মুস্তাফা কামাল। তিনি বলেন, সৌর বিদ্যুতের জন্য বিপুল পরিমাণ জমির প্রয়োজন হয়। যা বাংলাদেশের অভাব রয়েছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, পরিবেশের যেন ক্ষতি না হয়, সেদিকে সরকারের বিশেষ নজর রয়েছে। পরিবেশ রক্ষায় সরকার বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, ভি টোয়েন্টি ভালনারেবল ফাইনান্স সামিট এর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের ফোরামের চেয়ারপার্সন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ফোরামের সদস্য দেশ হিসেবে আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, বারবাডোস, ভুটান, কোস্টারিকা, ইথিয়পিয়া, ঘানা, কেনিয়া, মালদ্বীপ, নেপাল, ফিলিপাইন, সেন্ট লুসিয়া, তানজানিয়া, ভিয়েতনামসহ ২০টি দেশ রয়েছে।

নিউজনাউ/এসএ/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: