হিমাচল প্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী বীরভদ্র সিং আর নেই

নিউজনাউ ডেস্ক: ভারতের হিমাচল প্রদেশের সাবকে মুখ্যমন্ত্রী বীরভদ্র সিং মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) ভোরে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর।

হিমাচল প্রদেশের সিমলার ইন্দিরা গান্ধী মেডিকেল কলেজে (আইজিএমসি) স্থানীয় সময় ভোর ৩টা ৪০ মিনিটে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। সোমবার হার্ট অ্যাটাকের পর তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার তাকে ভেন্টিলেটরে দেওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসকদের সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে মৃত্যু হয় ছয়বারের মুখ্যমন্ত্রীর।

হিমাচল রাজনীতির সঙ্গে কার্যত সমার্থক ছিলেন বীরভদ্র। শেষ বয়সে তিনমাসের মধ্যে দুই বার করোনা আক্রান্ত হন তিনি। এপ্রিল ৩০ থেকেই হাসপাতালে ছিলেন তিনি। সেখানেই তার ৮৭তম জন্মদিন পালন করেন স্ত্রী প্রতিভা ও ছেলে বিক্রমাদিত্য।

১৯৮৩-১৯৯০ সময়ের জন্য প্রথমবারের মতো মুখ্যমন্ত্রী হন তিনি। তারপর ১৯৯৩-১৯৯৮, ২০০৩-২০০৭ ও শেষবারের জন্য ২০১২-২০১৭ সময়ে তিনি দায়িত্ব পালন করেন। কেন্দ্রেও তিনি প্রথমে প্রতিমন্ত্রী ও পরে পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্বভার পালন করেন। সবশেষ তিনি বিধায়ক ছিলেন হিমাচল বিধানসভায়। পাঁচ বার লোকসভায়ও গেছেন তিনি, প্রথমবার ১৯৬২ সালে ও শেষবার ২০০৯ সালে।

হিমাচলের রাজপরিবারের ছেলে বীরভদ্র সারাহানে জন্মগ্রহণ করেন ২৩ জুন ১৯৩৪ সালে। দিল্লির সেন্ট স্টিফেন্সে পড়াশোনা করেছিলেন তিনি। আক্ষরিক অর্থেই ওল্ড স্কুল রাজনীতিবিদ বীরভদ্রের কথার মধ্যেই স্পষ্ট হতো তার শিক্ষাদীক্ষা, আভিজাত্য। তার মৃত্যুতে শুধু কংগ্রেস নয়, হিমাচল প্রদেশের রাজনীতিতে অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল।
সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

নিউজনাউ/এফএস/২০২১

 

 

 

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: