৬ মাসে নির্যাতিত ১২০ সাংবাদিক

নিউজনাউ ডেস্ক : গণমাধ্যমকর্মীরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছে বেশি। লকডাউনেও কমেনি। পরিসংখ্যান বলছে, পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে দেশে গত ছয় মাসে (জানুয়ারি-জুন) ১২০ জন সাংবাদিক বিভিন্নভাবে নির্যাতন, হামলা-মামলা ও হয়রানির শিকার হয়েছেন।

বুধবার (৩০ জুন) আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) প্রকাশিত দেশের মানবাধিকার সংক্রান্ত প্রতিবেদনে এই চিত্র উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্যাতিত সাংবাদিকদের মধ্যে ১৮ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানে আক্রান্ত হন, নির্বাচনি সহিংসতায় ১৩ জন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমন উপলক্ষে বিক্ষোভ ও সহিংসতায় ১৮ জন সাংবাদিক আহত হন। অন্যরা স্থানীয় প্রভাবশালী মহল, ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী ও সন্ত্রাসীদের আক্রমণের শিকার হয়েছেন। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে এক জন সাংবাদিক মারা গেছেন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, দেশে গত ৬ মাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৭৬৭ জন। এদের মধ্যে একক ধর্ষণের শিকার ৬১১ জন এবং সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন ১৫৬ নারী। ধর্ষণের পর হত্যার শিকার হয়েছেন ২৪ জন এবং আত্মহত্যা করেছেন ৫ নারী। এছাড়া ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটেছে ১৬৬টি।

প্রতিবেদনে দেখা গেছে, গত ছয় মাসে দেশে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন ৬৪ নারী। আর যৌন হয়রানির শিকার হয়ে আত্মহত্যা করেছেন ৭ জন নারী। যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করতে গিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৭ জন পুরুষ, যাদের মধ্যে ৪ জনকে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় প্রতিবাদ করতে গিয়ে ২ জন নারীও হত্যার শিকার হয়েছেন।

প্রতিবেদনের তথ্যমতে, গত ছয় মাসে প্রধান প্রধান জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে দেখা গেছে, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হেফাজতে এবং ‘ক্রসফায়ারে’ ৩২ জন মারা গেছেন। এরমধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বিভিন্ন বাহিনীর সঙ্গে ‘ক্রসফায়ার’, বন্দুকযুদ্ধ, গুলিবিনিময় বা এনকাউন্টারে নিহত হন ২০ জন। এ সময়ে বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গুলিতে ৯ জন ও নির্যাতনে ৩ জন মারা যান। এছাড়া এই ছয় মাসে কারাগারে অসুস্থতাসহ বিভিন্ন কারণে ৪১ জন বন্দি মারা যান। এর মধ্যে কয়েদি ১৩ জন ও হাজতি ২৮ জন।

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: