আবু ত্ব-হা ‘স্বেচ্ছায় আত্মগোপনে’ ছিলেন

রংপুর ব্যুরো: আলোচিত ধর্মীয় বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানকে কেউ অপহরণ করেনি। ব্যক্তিগত কারণে গাইবান্ধায় তার বন্ধুর বাসায় ‘স্বেচ্ছায় আত্মগোপনে’ ছিলেন তিনি। পারিবারিক সূত্র ধরেই রংপুরে তাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে রংপুর মহানগর পুলিশের (আরএমপি) ক্রাইম ডিভিশনের উপ-কমিশনার আবু মারুফ হোসেন এতথ্য জানান। বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে আবু ত্ব-হাকে ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়।

ক্রাইম ডিভিশনের উপ-কমিশনার জানিয়েছেন, জিজ্ঞাসাবাদে আবু ত্ব-হা পুলিশকে জানিয়েছেন ঘটনার দিন রাজধানীর গাবতলী থেকে স্ত্রীর মোবাইল নম্বরে কল দিয়ে সর্বশেষ কথা বলেন। এরপর মোবাইল বন্ধ করে সেখান থেকে চলে যান গাইবান্ধা সদর উপজেলার ত্রিমোহনীতে সিয়াম নামের এক বন্ধুর বাড়িতে। এরপর থেকে তিনি কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেননি।

ব্যক্তিগত কারণে বন্ধুর বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন আবু ত্ব-হা। সেখানে তার সঙ্গে দুই সঙ্গী ছিলেন। তারা হলেন গাড়িচালক আমির উদ্দিন ও মুহিত। অপর সঙ্গী মুজাহিদকে বগুড়ায় রেখে যান তারা। এক সঙ্গীকে নিয়ে অপরজনকে বন্ধুর বাড়িতে রেখে শুক্রবার রংপুরে আসেন আবু ত্ব-হা। তার নিখোঁজ হওয়ার পেছনে কোন গোষ্ঠী কিংবা কেউ জড়িত ছিলেন না বলে ধারণা পুলিশের। জিজ্ঞাসাবাদে দেশ কিংবা রাষ্ট্রবিরোধী অথবা ষড়যন্ত্রমূলক কোন উদ্দেশ্য সম্পর্কে এখন পর্যন্ত জানা যায়নি।

কোন সূত্র ধরে তাদের উদ্ধার করা হয়েছে এমন প্রশ্নের উত্তরে ওই কর্মকর্তা বলেন, পারিবারিক একটি সূত্র ধরেই তাদের সন্ধান পাওয়া যায়। পরে তাদের উদ্ধার করে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। জিজ্ঞাসাবাদের পর তাদের আদালতের মাধ্যমে পরিবারের জিম্মায় দেয়া হতে পারে কিংবা তার দেওয়া জবানবন্দি অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, আবু ত্ব-হার সফরসঙ্গী গাড়িচালক আমির উদ্দিনকে রংপুর নগরীর নিজ বাসা হতে, মুহিতকে মিঠাপুকুর উপজেলার জায়গীরহাট থেকে এবং ফিরোজকে বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ থানা থেকে উদ্ধার করা হয়। ফিরোজকে নিয়ে আসার বিষয়ে শিবগঞ্জ থানায় যোগাযোগ করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া আদনান ব্যক্তিগত কারণটি পুলিশের কাছে বললেও তা সাংবাদিকদের কাছে প্রকাশে অপারগতা প্রকাশ করেন পুলিশের ওই কর্মকর্তা। তবে পারিবারিক সূত্র ধরেই তাদের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়।

আট দিন নিখোঁজ থাকার পর শুক্রবার সন্ধান পাওয়া যায় এই আলোচিত বক্তার। পরে তাকে রংপুর নগরের আবহাওয়া অফিস সংলগ্ন মাস্টার পাড়ায় তার শ্বশুরবাড়ি থেকে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আবু ত্ব-হাকে তার শ্বশুর আজহারুল ইসলাম মন্ডলের বাড়িতে ঢুকতে দেখেন তার এক প্রতিবেশি।

নিউজনাউ/এসএ/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: