চিরকুট লিখে কলেজ ছাত্রের আত্মহনন, পাশেই ছিল কিটনাশক

চট্টগ্রাম ব্যুরো: ‘এই পৃথিবীতে কেমন জানি বেঁচে থাকাটা আমার কাছে সবচেয়ে অপ্রিয় বস্তু হয়ে গেল। তাই আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছি।‘
এই চিরকুট লিখে আত্মহত্যার পথা বেঁচে নিয়েছে চট্টগ্রামের এক কলেজ ছাত্র। নগরের সিআরবি কাঠের বাংলোর দক্ষিণ পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় তার পাশে ছিল কীটনাশকের বোতল।

মৃত অনিক চৌধুরী (২৩) পটিয়া সরকারি কলেজে বিবিএ (সম্মান) হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের ২০১৭-১৮ বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি পটিয়া উপজেলার বাথুয়া ইউনিয়নের দোলন চৌধুরীর ছেলে।

মঙ্গলবার তার লাশ উদ্ধার করা হয় বলে নিউজনাউকে জানান কোতয়ালী থানার ওসি নেজাম উদ্দিন। তিনি বলেন, অনিকের মাথার নিচে থাকা ব্যাগের ভেতরে পাওয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ও কলেজের আইডি কার্ড দেখে তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। ওই ব্যাগ থেকে একটি চিরকুটও পাওয়া গেছে। ঘটনাস্থল থেকে লেবেল লাগানো কীটনাশকের একটি বোতল পাওয়া গেছে।’

মৃতদেহের গায়ে কোনো আঘাতের চিহ্ন ছিল না। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান ওসি নেজাম।

তিনি বলেন, চিরকুটে লেখা ছিল, ‘‘জীবনের সবকিছু পেয়েও পাওয়া হল না। মা-বাবা ইহলোকে ভালো থেকো। আমি পরপারে চলে গেলাম, আমাকে ক্ষমা করিও। মা, বেঁচে থাকার কোনো সাধ আমার ছিল না, তাই আমি নিজেই নিজেকে শেষ করে দিয়েছি।

‘‘আমার মৃত্যুতে কারো দোষ নেই। আমিই আমার কারণে নিজেকে দোষী সাব্যস্ত করলাম। এই পৃথিবীতে কেমন জানি বেঁচে থাকাটা আমার কাছে সবচেয়ে অপ্রিয় বস্তু হয়ে গেল। তাই আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছি।‘

নিউজনাউ/এফএস/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: