গোপালগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে কোটি টাকার ক্ষতি

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১টি এজেন্ট ব্যাংকের শাখাসহ ৮টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অগ্নিকান্ডে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়েছে। এ সময় ১ জন অগ্নিদগ্ধসহ ২ জন আহত হয়েছে। অগ্নিকান্ডে প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার পাটিকেল বাড়ী বাজারে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।

গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার প্রিন্স হাওলাদার জানান, রাত সাড়ে ১০টার দিকে পাটকেল বাড়ী বাজারের নিপেষ গোলদারের পেট্রোলের দোকানের রান্নাঘরের চুলা থেকে পেট্রোলে আগুন লাগে। মুহূর্তের মধ্যে আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে পরে। ফলে ডাচ বাংলা ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাকিং-এর একটি শাখা,ওষুধ, মুদি দোকান,সার-কীটনাশক, টেইলার্সসহ ৮ দোকান পুড়ে সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়। আগুনে দোকানপাট ও মালামাল ছাড়াও প্রায় ২ লাখ নগদ টাকাও পুড়ে যায়।

খবর পেয়ে গোপালগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে ৪০ মিনিটি চেষ্টার পর আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। এসময় আগুন নেভাতে গিয়ে পেট্রল দোকান মালিক নিপেষ গোলদার(৪০) অগ্নিদগ্ধ হন এবং অপর এক যুবক আহত হন। নিপেষ গোলদারকে উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ অগ্নিকান্ডে প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা।

ওষুধ,বিকাশ ও লাইব্রেরীর দোকানদার চিন্ময় বিশ্বাস বলেন, পাশের দোকানে রাতে পেট্রল ঢালতে ছিল দোকান মালিক নিপেষ গোলদার। ওই সময় দোকানের ভিতরের রান্নাঘরে গ্যাসের চুলা জ্বলছিল । এমন সময় গ্যাসের চুলা থেকে আগুন পেট্রলে লেগে যায়। পেট্রোলের আগুন ৩০ সেকেন্ড থেকে ১ মিনিটের ভিতর আমার দোকানে ঢুকে পড়ে। আমার ওষুধের দোকানের পাশাপাশি লাইব্রেরী ছিল । লাইব্রেরীতে ২ টি ফটোকপি মেশিন, ১টি কম্পিউটার, ১টি প্রিন্টার মেশিন আর নগদ টাকা প্রায় ২ লক্ষ টাকার মত ছিল । আর ওষুধ প্রায় ৪ লক্ষ টাকার মতো ছিল। কিছুই নিয়ে বের হতে পারি নাই । দোকানে ছিলাম আমি ।আগুন আমার গায়ে এসে পড়ে। আমি নিজের জান বাঁচানোর জন্য সবকিছু রেখে দৌড়ে বেরিয়ে আসি। আমার প্রায় ২০ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে । আমি এখন বাঁচবো কি করে । আমার ছেলে মেয়ে লেখাপড়া করে। আমি এখন অসহায় পড়েছি। আমি সরকারের কাছে অনুরোধ করছি যাতে আমি আমার ছেলে মেয়ে নিয়ে বেঁচে থাকতে পারি সে ব্যবস্থা করে।

সাহাপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সুবোধ চন্দ্র হীরা বলেন,পাটিকেলবাড়ী বাজারে অগ্নিকান্ডে প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। যে সকল দোকান পুড়ে ভস্মীভূত হয়ে গেছে এদের কোন নিজস্ব জমিজমা নাই। এই ব্যবসার উপরেই পরিবার নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে। এরা আর্থিক সহযোগিতা না পেলে ভেসে যাবে। আমি সরকারের কাছে দাবি রাখি যাতে সরকারি ভাবে সাহায্য পেয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে আবার ফিরে দাঁড়াতে পারে।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: