তিন হাজার আফগান নাগরিককে বসবাসের অনুমতি দিচ্ছে ব্রিটেন

নিউজনাউ ডেস্ক: ব্রিটেন স্থায়ী ভাবে বসবাসের অনুমতি পাবেন তিন হাজারের বেশি আফগান নাগরিক। আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সেনা প্রত্যাহার এবং তালেবান যোদ্ধাদের ক্ষমতা দখলের ক্রমবর্ধমান আশঙ্কার মধ্যেই এই পরিকল্পনা ঘোষণা করা হলো।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, আফগানিস্তানে ব্রিটিশ সামরিক বাহিনী এবং ব্রিটিশ সরকারের বিভিন্ন সংস্থায় দোভাষী হিসেবে কাজ করতেন শত শত আফগান নাগরিক। বিদেশি সেনা সদস্যরা আফগানিস্তান ছেড়ে গেলে ‘শত্রুদের’ সহযোগী হিসেবে কাজ করা এসব আফগান নাগরিক তালেবানের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হতে পারেন। আর তাই বিদেশি সেনাদের দেশ ছাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তালেবানের কবল থেকে তাদেরকে বাঁচাতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সংবাদমাধ্যমটি আরও জানিয়েছে, বিদেশি সামরিক বাহিনীসহ বিভিন্ন সংস্থায় দোভাষী হিসেবে কাজ করা এসব ব্যক্তিদের পরিবারের সদস্যসহ ৩ হাজারেরও বেশি আফগান নাগরিককে যুক্তরাজ্যে স্থায়ী বসবাসের সুযোগ পাবেন বলে আশা করা হচ্ছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৩০০ জন ইতোমধ্যেই দেশটিতে পাড়ি জমিয়েছেন।

যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস এই প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিতে এটাই ‘একমাত্র উপায়’ বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, বিদেশি সেনাদের অনুপস্থিতির সুযোগে তালেবানের প্রতিশোধমূলক হামলার শিকার হতে পারেন, এমন ব্যক্তিদেরকেই আফগানিস্তান থেকে স্থানান্তর করা হচ্ছে। যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল বিষয়টিকে ‘নৈতিক বাধ্যবাধকতা’ হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে সন্ত্রাসী হামলা চালায় জঙ্গিগোষ্ঠী আল কায়দা। সেই হামলায় প্রায় তিন হাজার মানুষ নিহত হয়েছিলেন। এরপরই আল কায়দার পৃষ্ঠপোষক তালেবান গোষ্ঠীকে দমন করতে আফগানিস্তানে হামলা করে যুক্তরাষ্ট্র ও সামরিক জোট ন্যাটো।

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদী এই যুদ্ধ অবসানের লক্ষ্যে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত বছর আফগানিস্তান থেকে চলতি বছরের মে মাসের মধ্যে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে একমত হয়ে তালেবানের সঙ্গে চুক্তি করেছিলেন। প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর জো বাইডেন সেনা প্রত্যাহারের সময়সীমা আগামী ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়েছেন।

সূত্র: বিবিসি

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: