বন্দরের ড্রেজিং কাজ শেষ না হলে মোংলা নদীর পাশে বেড়িবাঁধ নির্মাণ সম্ভব নয়

মোংলা প্রতিনিধি: ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসে মোংলার কানাই থেকে চিলা পর্যন্ত বেড়িবাঁধের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। নদী কুলের প্রায় দীর্ঘ ছয় কিলোমিটার এলাকার বাসিন্দারা পানি বন্ধী হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে ওই সব এলাকাসহ উপজেলার চিলা, চাদপাই ও বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের ৬৮৫ টি মৎস্য-ঘেরের ৩শ হেক্টর ভূমির মাছ। বৃহস্পতিবার ও জোয়ারে পানি প্রবেশ করেছে নদী কুলের বাসিন্দাদের বাড়ী ঘর ও মৎস্য ঘেরে। উপজেলা মৎস্য বিভাগের হিসাব মতে তলিয়ে যাওয়া ওইসব মৎস্য চাষির প্রায় বিশ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আর ৫১০টি কাচা ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার।

Open Photo

বৃহস্পতিবার(২৭ মে) ওইসব ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন, স্থানীয় সাংসদ উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বিশ্বজিৎ বসু। পরিদর্শন শেষে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা জানান,নতুন টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য জরিপ কার্যক্রম শুরু করেছেন তারা। এর পর প্রকল্প অনুমোদনসহ প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্ধ পেলে তবেই শুরু করা হবে টেকসই বেড়িবাঁধের কাজ।

Open Photo

অন্যদিকে পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার বলেন,বন্দরের ইনারবার ড্রেজিং কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ওই ড্রেজিংয়ের ফলে নদীর রূপ পরিবর্তন হতে পারে। তাই ড্রেজিং কাজ শেষ না হলে স্থায়ী বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা যাবেনা।

এদিকে জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার গুলোকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থাকা কে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে।

নিউজনাউ/আরবি/২০২১

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান
%d bloggers like this: