আলোচনায় আলোচিত ‘ন ডরাই’

আবারো আলোচনায় আলোচিত চলচ্চিত্র ‌‘ন ডরাই’। নানা তর্ক-বিতর্কের পর চট্টগ্রামের ভাষায় নির্মিত দেশের প্রথম সার্ফিং বিষয়ক চলচ্চিত্র ‘ন ডরাই’ ২৯ নভেম্বর মুক্তি পায় আটটি প্রেক্ষাগৃহে। তিন সপ্তাহ পর চতুর্থ সপ্তাহ গড়াতেই প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা বাড়লো আরও ১০টি। এর মধ্যে চট্টগ্রামেরই চারটি প্রেক্ষাগৃহ।

শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) থেকে দেশের যে ১৮টি প্রেক্ষাগৃহে ‘ন ডরাই’ ছবিটি চলবে, তার মধ্যে চারটিই চট্টগ্রামের। এগুলো হচ্ছে সিলভার স্ক্রিন, আলমাস, সিনেমা প্যালেস ও পটিয়ার ছন্দা সিনেমা। কক্সবাজারের বিজিবি অডিটোরিয়ামেও প্রদর্শিত হবে ছবিটি। রাজধানীতে ছবিটি দেখা যাবে স্টার সিনেপ্লেক্স (পান্থপথ, ধানমণ্ডি ও মহাখালী), ব্লকবাস্টার (যমুনা ফিউচার পার্ক), শ্যামলী (শ্যামলী) ও বলাকায় (নিউমার্কেট)। ঢাকার বাইরে ছবিটি আরও চলবে সাভারের সেনা অডিটোরিয়াম, নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ, সিলেটের নন্দিতা, ময়মনসিংহের ছায়াবাণী, খুলনার লিবার্টি, বরিশালের অভিরুচি, বগুড়ার মম ইন, টাঙ্গাইলের মালঞ্চ, মানিকগঞ্জের নবীন সিনেমা হলে।

‘ন ডরাই’— সার্ফিং নিয়ে বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো নির্মিত পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। তানিম রহমান অংশু পরিচালিত ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন কলকাতার শ্যামল সেনগুপ্ত। অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ, সুনেরাহ বিনতে কামাল, সাঈদ বাবু, জোসেফাইন লিন্ডেগার্ড প্রমুখ। একজন নারী সার্ফারের জীবন নিয়ে তৈরি ছবিটির গল্প গড়ে উঠেছে সত্য ঘটনা অবলম্বনে। এর প্রায় সব দৃশ্যধারণই হয়েছে কক্সবাজারে। প্রায় সব সংলাপই চট্টগ্রামের ভাষায়। তবে নির্মাতারা জানিয়েছেন, এমনভাবে চট্টগ্রামের ভাষা ব্যবহার করা হয়েছে, তাতে সেটা বুঝতে সমস্যা হবে না।

+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
+1
0
আপনার মতামত জানান